আটকা পড়া ২৭ জন মিয়ানমার নাগরিক স্বদেশে ফিরেছে : রয়েছে আরো দেড় শতাধিক

DSC02878-150x150.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক |
বাংলাদেশে আটকা পড়া ২৭ জন মিয়ানমার নাগরিক স্বদেশে ফিরেছে। ১২ অক্টোবর বুধবার দুপুরে টেকনাফ বন্দর ইমিগ্রেশন জেটি দিয়ে এদের ফেরত পাঠানো হয়। বিভিন্ন সময়ে এসব নাগরিক সীমান্ত বানিজ্যের আওতায় মিয়ানমারের মংডু শহরে থেকে টেকনাফ বন্দর ইমিগ্রেশন দিয়ে বাংলাদেশে আসে। গত রবিবার ভোরে মিয়ানমারের আরাকান রাজ্যের মংডু থানা এলাকার মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পলিশের (বিজিপি) তিনটি ক্যাম্পে স্বশস্ত্র হামলা, হতাহত ও অস্ত্র-গুলি লুটের পর থেকে টেকনাফ-মংডু বৈধ যাতায়াত অঘোষিত ভাবে বন্ধ রয়েছে। এর ফলে বাংলাদেশে মিয়ানমারের প্রায় দু’ শতাধিক এবং মিয়ানমারের মংডুতে বাংলাদেশের ২০ জন নাগরিক আটকা পড়ে। এর মধ্যে ২০ জন বাংলাদেশী গত সোমবার সন্ধ্যায় দেশে ফিরে আসেন। কিন্তু মিয়ানমারের লোকজন তিনদিন ধরে আটকা পড়ে থাকে। অবশেষে বুধবার দুপুরে মিয়ানমারের ২৭ জন নাগরিক ফিরে গেছে। তবে টেকনাফ বন্দরের গেইটে অপেক্ষা করছে আরো ২০ জন মিয়ানমার নাগরিক। এ প্রসংগে টেকনাফ বন্দরের ইমিগ্রেশন বিভাগের দায়িত্বরত ডাটা এ্যান্ট্রি অপারেটর মোঃ আনোয়ার জানান, দূর্যোগপূর্ন আবহাওয়ার কারনে মঙ্গলবার মিয়ানমার নাগরিকদের ফেরত পাঠানো সম্ভব হয়নি। তবে বুধবার সকালে ২৭ জন আটকা পড়া মিয়ানমার নাগরিকদের ফেরত পাঠানো হয়েছে। অন্যান্যদের পাঠানোর ব্যবস্থা নিতে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে। খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে এর সমাধান হয়ে যাবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।
প্রসংগত গত রবিবার ভোরে মিয়ানমারের বিজিপি’র তিনটি ঘাটিঁতে স্বশস্ত্র হামলায় ৯ জন বিজিপি নিহত হয়। লুট হয় ৬৩ টি অস্ত্র ও ১০ হাজার রাউন্ড গুলি।