থাইংখালীতে ব্যবসায়ীকে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা

778999.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদক |
উখিয়া উপজেলার পালংখালীর থাইংখালীতে মিজানুর রহমান (২৮) নামে এক ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। ছিনিয়ে নিয়েছে নগদ ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা ও একটি মোবাইল ফোন। শনিবার (৮ অক্টোবর) দিবাগত রাতে সাড়ে নয়টার দিকে থাইংখালী মোহাম্মদ ছিদ্দিকের বাড়ীর সামনে হামলার ঘটনাটি ঘটে। আহত ব্যবসায়ী থাইংখালী মধ্যমপাড়ার জাফর আলমের ছেলে এবং খুচরা সার ডিলার ও ক্রোকারিজ পণ্যের প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। বর্তমানে আহত মিজান কক্সবাজারের এশটি হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। এ ঘটনায় জড়িত কেউ আটক হয়নি। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।
আহত ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান জানিয়েছেন, প্রতিদিনের মতো নিজ ব্যবসায়িক কাজকর্ম সেরে বাড়ী ফেরার পথে থাইংখালী মোহাম্মদ ছিদ্দিকের বাড়ীর (ব্রীজের পাশে) সামনে পৌঁছলে চিহ্নিত দুর্বৃত্তরা তার গতিরোধ করে। এরপর এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও ইয়াবা পাচার চক্রের অন্যতম হুতা মোজাফ্ফরের ছেলে মো. তারেক নেতৃত্বে জামাল প্রকাশ ডাকাত জামাল, মনজুর প্রকাশ ডাকাত মনজুর, লেড়–, শুক্কুর, মনজুর, জামাল প্রকাশ কালা জামালসহ অন্তত ৬/৭ জন দুর্বৃত্ত হামলার ঘটনাটি ঘটায়। দুর্বৃত্তদের বেপরোয়া খন্তা, খুর, লাঠি ও ছুরিকাঘাতে তার শরীরের বিভিন্ন অংশে ক্ষত-বিক্ষত হয়ে গেছে। এতে তিনি গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে গেলে এলাকাবাসী উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। ব
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, হামলায় সম্পৃক্তরা এলাকার বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজে জড়িত। সীমান্তে ইয়াবা পাচার থেকে শুরু সব অপকর্মের অন্যতম ভূমিকা এই সিন্ডিকেটের। তাদের হাতে জিম্মি সরলমনা মানুষগুলো। এসব অপরাধের অভিযোগে এই সিন্ডিকেটের সবার বিরুদ্ধে বিভিন্ন মামলা রয়েছে। এলাকাবাসী তাদের অপকর্ম থেকে রেহায় পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। তারা আরো বলেন সিমান্তেবর্তী এই ইয়াবা সিন্ডিকেটকে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন আইনের আওতায় নিয়ে আসা যায় তাহলে ওই এলাকার ডাকাতি ও ইয়াবাসহ নানা অপর্কম বন্ধ হয়ে যাবে।
এ প্রসঙ্গে উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল খায়ের জানান, ঘটনার বিষয়ে কারো পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তবে, নিরীহ মানুষের উপর হামলার ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। ঘটনাটির খোঁজ খবর নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।