নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্পভিত্তিক রেশন ক্রেতা চক্র বেপরোয়া !

n.camp-teknaf-today-pic.jpg

হেলাল উদ্দিন, টেকনাফ |
টেকনাফের নয়াপাড়া রেজিষ্টার্ড রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে রেশন ক্রেতা চক্র বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। এদের উৎপাতে সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে।
অভিযোগে জানা যায়-উপজেলার নয়াপাড়া শরণার্থী ক্যাম্পে অবস্থানরত রোহিঙ্গা নরী-পুরুষ ও শিশুদের জন্য সরকার ও বিভিন্ন সংস্থা কর্তৃক প্রদত্ত রেশন বা খাদ্য সামগ্রীর প্রয়োজনের অতিরিক্ত রেশন রোহিঙ্গারা বিভিন্ন ব্যক্তি ও দোকানের নিকট বিক্রি করে থাকে। দীর্ঘদিন ধরে একটি শক্তিশালী চক্র এসব রেশন সামগ্রী ক্রয় করে বাণিজ্য চালিয়ে আসছে। গত ৫ অক্টোবর সকাল ১০টারদিকে হ্নীলা মোচনী পাড়া গ্রামের বশির আহমদের পুত্র ছাবের হোছন (৩২) সস্তা পেয়ে ১৪শত টাকা দিয়ে একবস্তা চাউল কিনে ফেরার পথে ক্যাম্প থেকে বের হওয়ার গেইটে স্থানীয় রোহিঙ্গা ক্যাম্পের রেশন ক্রেতা সিন্ডিকেটের সদস্য এজাহার মিয়ার পুত্র নুর হোসেন, মৃত আবু তাহের মিয়ার পুত্র শামসুল আলম, শফিউদ্দিনের পুত্র শাহাব উদ্দিন, লোকমান হাকিমের পুত্র দেলোয়ার সিন্ডিকেট মিলে চাউলের বস্তাটি ছিনিয়ে নেয়। তারা এই এলাকা থেকে লিজ নিয়ে রেশন ক্রয় করছে বলে দম্ভোক্তি করে। বিষয়টি প্রশাসনের কর্তা ব্যক্তিদের মুঠোফোনে অবহিত করা হলে স্থানীয় পুলিশের নিকট যেতে বলা হয়। স্থানীয় ক্যাম্পের পুলিশকে অবহিত করা হলে উল্টো রেশন ক্রেতা সিন্ডিকেটের পক্ষাবলম্বন করায় কোন প্রতিকার পায়নি।
এই ব্যাপারে স্থানীয় মেম্বার মোহাম্মদ আলীর সাথে যোগাযোগ করা হলে এই বিষয়ে কেউ অবগত করেনি। তবে খোঁজ-খবর নিয়ে দেখা হবে।