রামু’য় দুশতাধিক বিএনপি নেতা যোগ দিলেন আ’লীগে

.jpg

বিগত ৪৩ বছরের চেয়ে অধিক উন্নয়নে এমপি কমলের প্রত্যয়
শামীম ইকবাল চৌধুরী, নাইক্ষ্যংছড়ি(বান্দরবান)থেকেঃঃ
বিগত ৪৩ বছরের যা হয়েছে, মাত্র ৫ বছরে এর চেয়ে বেশি উন্নয়ন করার ঘোষণা দিয়েছেন কক্সবাজার-রামু সদর আসনের জনপ্রিয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল। তিনি বলেন-বাংলাদেশের সফল প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের প্রতীক ‘নৌকা’। নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জয়লাভ করলে এলাকার উন্নয়ন হয়। তাই আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এই আসনটি ফের বঙ্গকন্যা ও দেশরতœকে উপহার দিতে হবে। আর তাই দলীয় নেতাকর্মীদের পাশাপাশি সর্বস্থরের মানুষকে রাজপথে নামতে হবে।
সোমবার (৩ অক্টোবর) দিনব্যাপি রামুর খাউয়ারকোপ ও কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডের উদ্বোধন ও ভিত্তি প্রস্থরকালে তিনি এসব কথা বলেন। সাইমুম সরওয়ার বলেন-‘বর্তমান সরকারের আমলে কক্সবাজার-রামুর প্রত্যন্ত অঞ্চলে ব্যাপক উন্নয়ন হচ্ছে। এ উন্নয়নের ধারাকে এগিয়ে নিতে হলে শেখ হাসিনার সরকারের বিকল্প নেই”।
জাতীয় সংসদের শ্রেষ্ট এ বক্তা আরও বলেন, ‘উন্নয়নের পূর্বশর্ত যোগাযোগ। যোগাযোগ ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজানোর মধ্য দিয়ে কক্সবাজার-রামুকে সারাদেশ তথা বিশ্বের কাছে একটি পরিপূর্ণ ও নিরাপদ পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে তুলছে সরকার।’ বর্তমান সরকার প্রতিটি ইউনিয়নের ওয়ার্ড় ভিত্তিক বিভিন্ন সমস্যা চিহ্নিত করে সঠিক পরিকল্পনার মাধ্যমে উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনা করে যাচেছ। বিএনপি জামায়েত সরকারের আমলে যে সমস্ত অনুন্নত ও অবহেলীত এলাকায় উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি, এ সরকার ঐসব এলাকার উন্নয়নে সক্ষম হয়েছে। তিনি বলেন সারা দেশে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের জোয়ার শুরু হয়েছে।
এমপি কমল বলেন-শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়ন কক্সবাজার-রামুর প্রতিটি গ্রামে গ্রামে ছড়িয়ে পড়বে। বর্তমান সরকার আলেম সমাজের সম্মানে বদ্ধপরিকর। দেশে নতুন নতুন মসজিদ মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা ও অবকাঠামো উন্নয়নের মাধ্যমে আলেম সমাজের সাথে বর্তমান সরকার একটি দৃঢ় সম্পর্ক রাখতে সক্ষম হয়েছে। ইসলামীক ফাউন্ডেশন পরিচালনার মাধ্যমে মসজিদ ভিত্তিক শিক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করার মাধ্যমে ইসলামী শিক্ষার সম্প্রসারন করেছে। তিনি বিরোধীদলের মিথ্যাচারে পথভ্রষ্ট না হয়ে সজাগ থাকার জন্য এলাকার জনসাধারনের প্রতি অনুরোধ জানান।
খাউয়ারকোপ-উখিয়ারঘোনা-গর্জনিয়া সড়কের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন, কচ্ছপিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন একাডেমীক ভবন ও শাহ সূজা সড়কে কার্পেটিং এর কাজ উদ্বোধন ও কচ্ছপিয়ার বদুপাড়া ৮নং ওয়ার্ডের পিআইও ব্রীজের উদ্বোধন, গর্জনিয়া ফয়জুল উলুম ফাজিল মাদ্রাসার চার কক্ষবিশিষ্ট শপিং সেন্টারের ভিত্তিপ্রস্থর শেষে সন্ধ্যায় গর্জনিয়া বাজার প্রাঙ্গনে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল। ওই অনুষ্ঠানে তাঁর হাত ধরে কচ্ছপিয়ার যুবদলনেতা সাইফুল ইসলাম ও আবুল কালামের নেতৃত্বে দুশতাধিক বিএনপির নেতাকর্মী আওয়ামী লীগে যোগ দেন।
কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আমিন কোম্পানির সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন-রামু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম। কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন সোহেল সিকদারের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন-জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রুস্তম আলী, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক তপন মল্লীক, খাউয়ারকোপ ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শামশুল আলম, বর্তমান চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ, মাষ্টার ফরিদ আহমদ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আবু বক্কর, যুবলীগনেতা নবিউল হক আরকান, আওয়ামীলীগনেতা ছৈয়দ মোঃ আব্দু শুক্কুর, ফতেখারকুল ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আজিজুল হক আজিজ, খাউয়ারকোপ ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুর সোহেল, কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগনেতা জয়নাল আবেদীন মেম্বার, উপজেলা ছাত্রলীগনেতা সাদ্দাম হোসেন, গর্জনিয়া ফয়জুল উলুম ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ আয়ুব, কচ্ছপিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য মাওলানা আবু আবদুল্লাহ মোঃ জহির উদ্দিন বদরু, গর্জনিয়ার আওয়ামী লীগ নেতা ফরিদ আহমদ চৌধুরী, ডাঃ ছুরুত আলম, কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি হেলাল উদ্দিন সিকদার, সাধারণ সম্পাদক লবা কর্মকার, গর্জনিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি হাফেজ আহমদ, সাধারণ সম্পাদক গোলাম মওলা প্রমূখ।
উল্লেখ্য, জনপ্রিয় এমপি কমলের আগমন উপলক্ষে কচ্ছপিয়া ইউনিয়নে অর্ধশতাধিক তোরণ নির্মাণ করা হয়। সড়কের প্রতিটি পয়েন্টে তাঁকে মানুষ ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানান।