স্মার্ট আইডি কার্ড বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

hasina_26563_1475385994.jpg

ফাইল ছবি

টেকনাফ টুডে ডেস্ক |
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে তার নতুন কার্ড তুলে দেয়ার মাধ্যমে শুরু হলো জাতীয় পরিচয়পত্র স্মার্টকার্ড বিতরণ কার্যক্রম।

নির্বাচন কমিশন (ইসি) লেমিনেটেড জাতীয় পরিচয়পত্রের বদলে ১০ কোটি নাগরিকের মধ্যে এই মেশিন রিডেবল স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ করছে।

রোববার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র (স্মার্টকার্ড) বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এসময় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ প্রধানমন্ত্রীর হাতে তার স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র তুলে দেন।

সূত্র জানায়, ইসি স্মার্টকার্ড বিতরণের সময় কার্ডধারীদের ১০ আঙুলের ছাপ এবং বর্ণালি ছবিসহ বায়োমেট্রিক তথ্য সংগ্রহ করবে।

মেশিন রিডেবল এই স্মার্টকার্ড জাতীয় পরিচয়পত্রে জালিয়াতি রোধে অতিরিক্ত নিরাপত্তাব্যবস্থা রয়েছে।

ইসি সচিবালয় সূত্র জানায়, কার্ড বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোন হওয়ায় আজ প্রথমে এই স্মার্ট আইডি কার্ড রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

পরে রাজধানী ঢাকার দুটি সিটি করপোরেশন ও দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল কুড়িগ্রামে বিতরণের কাজ শুরু করা হবে। তারপর উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডে পর্যায়ক্রমে স্মার্টকার্ড বিতরণ করা হবে।

ইসির কর্মকর্তারা জানান, বর্তমানে দেশে ভোটার সংখ্যা প্রায় ১০ কোটি। আট বছর আগে আট কোটি ১০ লাখ ৫৮ হাজার ৬৯৮ নাগরিকের মধ্যে প্রথমবারের জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ করা হয়েছিল।

কিন্তু কিছু অসাধু লোক ওই পরিচয়পত্র নকল করেছিল। মেশিন রিডেবল স্মার্টকার্ড এই ধরনের জালিয়াতি প্রতিরোধ করবে।

স্মার্টকার্ডের নিরাপত্তা বজায় রাখতে ২৫টি আন্তর্জাতিক সার্টিফিকেশন এবং মান নিশ্চিত করা হয়েছে। স্মার্টকার্ডের মধ্যে কার্ডধারী নাগরিকের সব তথ্য থাকবে।

কার্ডধারীরা ব্যাংকিং, টিআইএন, ড্রাইভিং লাইসেন্স, পাসপোর্টসহ ২২ ধরনের সেবা পাবেন।

ইসি সূত্রে জানা যায়, স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিনামূল্যে দেয়া হবে। কার্ড হারানো গেলে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা দিয়ে তা নতুনভাবে সংগ্রহ করা যাবে।