নাইক্ষ্যংছড়িতে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে কৃষি প্রণোদনার সার ও ভূট্টা বীজ বিতরণ

RRR.jpg

শামীম ইকবাল চৌধুরী,নাইক্ষ্যংছড়ি(বান্দরবান)থেকেঃঃ
নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা কৃষি অফিসের আয়োজনে আসন্ন রবি মৌসুমে কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ৯০ জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকের মধ্যে বিনামূল্যে সার ও ভূট্টা বীজ বিতরণ উদ্বোধন করা হয়েছে। রবিবার (২ অক্টোবর) বেলা ১১.০০ টার দিকে উপজেলা কৃষি কর্যালয়ে ভার প্রাপ্ত কৃষি কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোঃ কামাল উদ্দীন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হামিদা চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র নেতা অধ্যাপক মোঃ শফি উল্লাহ, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন আহ্বায়ক তছলিম ইকবাল চৌধূরী, সদস্য সচিব মোঃ ইমরান মেম্বার, নাইক্ষ্যংছড়ি প্রেসক্লাবের সভাপতি শামীম ইকবাল চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবুল বাশার নয়ন, সাংবাদিক জাহাঙ্গীর আলম কাজল, কৃষি উপ সহকারি কর্মকর্তা মুহিবুল ইসলাম রাজীব, শিমুল বড়–য়া, সেলিনা আক্তার কাজল,সাইফুল ইসলাম, বাকঁখালী মৌজার কৃষক মওলনা নুরুল ইসলাম মেম্বার প্রমুখ। বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ, স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবৃন্দ এবং বিভিন্ন প্রিন্ট মিডিয়ার প্রতিনিধিবৃন্দ অনুষ্ঠানের সার্বিক সঞ্চালনায় ছিলেন কৃষি উপ সহকারি কর্মকর্তা টিটন দে।
উপজেলা কৃষি উপ সহকারি অফিসার মুহিবুল ইসলাম এ প্রতিবেদককে জানান এ বছর এই কর্মসূচির আওাতায় ১ লক্ষ ৩৩ হাজার ৬৫০ টাকা মূল্যের ৯০ জন কৃষকদের মাঝে বিনা মুল্যে ২ কেজি করে ভুট্টা বীজ, ২০ কেজি করে ডিএপি ও ১০ কেজি করে এমওপি রাসায়নিক সার বিতরণ করা হয়। নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় কৃষি প্রণোদনার আওতায় উপজেলায় মোট উপকারভোগীর সংখ্যা ৯০ জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষক। এদের মধ্যে ভূট্টা চাষের জন্য ৯০ জন রয়েছেন। ইউনিয়ন কমিটির মাধ্যমে এসব উপকারভোগীদের তালিকা তৈরি হয়েছে। তিনি আরো জানান ভূট্টা চাষী প্রত্যেকে ২ কেজি হাইব্রিড ভূট্টা বীজ ও ২০ কেজি ডিএপি ১০ কেজি পটাশ সার সম্পূর্ন বিনামূল্যে পাচ্ছেন।
প্রধান অতিথি ভারপ্রাপ্ত কামাল উদ্দীন বক্তব্যে জানান বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার একটি কৃষি বান্ধব সরকার। কৃষি বান্ধব এ সরকারের আমলে দেশ কৃষিতে সত্যিকারের উন্নয়ন করতে সক্ষম হয়েছে বিধায় দেশ এখন খাদ্যে স্বয়ং সম্পূর্নতা অর্জন করে বিদেশেও খাদ্য শস্য রপ্তানী করছে।
উপজেলা ভারপ্রাপ্ত কৃষি কর্মকর্তা জানান, কৃষি বান্ধব সরকারের এই কৃষি প্রণোদনা কার্যক্রম সঠিকভাবে বাস্তবায়িত হলে এ অঞ্চলের কৃষিতে ব্যাপক উন্নয়ন হবে। তিনি উপকাভোগী কৃষকদের প্রাপ্ত উপকরনাদীর সঠিক ব্যবহারের উপর জোর তাগাদা দেন। বিনামূল্যে সময়মত উন্নত বীজ ও সার পেয়ে কৃষকরা খুশি হয়ে বর্তমান সরকারের এ ধরনের কৃষি বান্ধব কার্যক্রমের ভূয়সী প্রসংশা করেছেন।