মালয়েশিয়া প্রবাসী’র মৃত দেহ সাড়ে ছয় মাস পর দেশে

malaysia_26061_1474895509.jpg

মাহবুবুর রহমানন ফাহিম, মালয়েশিয়া থেকে |

মালয়েশিয়ায় মৃত্যুবরণ করা এক প্রবাসী বাংলাদেশীর মৃতদেহ দীর্ঘ সাড়ে ছয় মাস পর দেশে গেলো বৃহস্পতিবার রাতে। মৃতদেহ দেশে পাঠানোর জন্য প্রবাসীর স্ত্রীর লেখা আবেদন পত্রের মাধ্যমে জানা যায় গত ১৫ মার্চ মালয়েশিয়া প্রবাসী মো: মনির হোসেন মারা যান। সে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ উপজেলার ধনকুন্ডা গ্রামের মৃত ওমর আলীর ছেলে।

পারিবারিক খরচে লাশ দেশে নেওয়ার মতো আর্থিক সামর্থ্য ছিলো না মনির হোসের স্ত্রীর। এক সপ্তাহ আগে (২৩ সেপ্টেম্বর) মৃত মনির হোসেনের লাশ দেশে পাঠানোর জন্য মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ হাই কমিশনার বরাববে লেখা তাঁর স্ত্রী আসমা খাতুনের একটি আবেদন পত্র মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের হোয়াটসআপ গ্রুপে পোস্ট করেন ইব্রাহিম কে রাজা নামে একজন প্রবাসী। ইব্রাহিম কে রাজা মৃত ব্যক্তির লাশ দেশে পাঠানোর জন্য সবার সহযোগিতা চান। পরে মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের আহবায়ক রেজাউল করিম রেজার অনুরোধে লাশটি দেশে পাঠানোর উদ্যোগ নেন মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের নেতা মকবুল হোসেন মুকুল, অহীদুর রহমান অহীদ, রাসেদ বাদল সহ কয়েকজন নেতা।

মনির হোসেনের মৃতদেহ মালয়েশিয়ার সময় ৩০ সেপ্টেম্বর রাত তিনটা ২০ মিনিটের বাংলাদেশ বিমানে বিজি০৮৭ প্লাইটে দেশে যাওয়ার কথা। বাংলাদেশ সময় শুক্রবার ভোর পাঁচটায় ঢাকা পৌঁছানোর কথা রয়েছে। ঢাকা এয়ারপোর্ট থেকে মৃতদেহটি গ্রহন করবেন মনির হোসেনের স্ত্রী আসমা খাতুন ও মা জাহেরা খাতুন।

মনির হোসেনের মৃতদেহ দেশে ফেরার মধ্যদিয়ে অবসান হবে প্রিয়জনের অপ্রত্যাশিত লাশের জন্য তাঁর পরিবারের কষ্টের দীর্ঘ সাড়ে ছয় মাসের অপেক্ষা।