পেকুয়ায় সড়কের পাশ থেকে পরিত্যক্ত অস্ত্র, কার্তুজ ও মদ উদ্ধার

.jpg

পেকুয়া প্রতিনিধি |
ক´বাজারের পেকুয়ায় সড়কের পাশ থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় দেশীয় তৈরী একটি বন্দুক ও চোলাই মদ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত ৩০ সেপ্টেম্বর শুক্রবার ভোররাত আনুমানিক সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের পশ্চিম গোঁয়াখালী রাবার ড্যাম সংগ্লন্ন জালিয়াখাঁলী সড়কের স্কুল ঘোনা নামক এলাকা থেকে এসব উদ্ধার করা হয়। থানা সূত্র জানায়, পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ও.সি) জিয়া মোঃ মোস্তাফিজ ভুইয়া গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশি টহলকালে ওই এলাকার সড়কের পাশ থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় একটি দেশীয় তৈরী একটি বন্দুক, ২রাউন্ড কার্তুজ, এক লিটার মদ ও এক জোড়া জুতা উদ্ধার করে। স্থানীয় সুত্র জানিয়েছে, পশ্চিম গোঁয়াখালী বকসু চৌকিদার পাড়া এলাকার মরহুম ফরুখ আহমদ চৌধুরী গংয়ের সাথে একই এলাকার ভুমি দস্যু রাহাত মিয়ার দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। গত কয়েক বছর ধরে রাহাত গং ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে ওই বিরোধীয় জমি দখলে নেয়ার পাঁয়তারায় মাতেন। যার জের ধরে ওই দিন রাতে রাহাত মিয়ার ভাড়াটিয়ারা বিরোধীয় জায়গায় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে প্রকাশ্য মহড়া দেয়। এসময় রাত আনুমানিক ৯টার দিকে বেশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষনের ঘটনায় জনমনে আতংক ছড়ায়। এদিকে, ফরোখ আহমদ চৌধুরী গং এর ফরহাদুল ইসলাম চৌধুরী, ফখরুল ইসলাম চৌধুরী, আব্দুল মন্নান ও তাদের প্রতিদ্বন্ধী প্রতিপক্ষ পরিবারের লোকজনদের ফাঁসানোর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসাবে এঘটনার অবতারনা করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয়রা। অস্ত্র উদ্ধারের বিষয়ে ও.সি জিয়া মোঃ মোস্তাফিজ ভুঁইয়ার কাছে জানতে চাইলে তিনি ঘটনাস্থল থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় দেশীয় তৈরী ১টি বন্দুক, ২রাউন্ড কার্তূজ, ১জোড়া ছেঁড়া জুতা ও মদ উদ্ধারের কথা স্বীকার করেন এবং এ বিষয়ে পেকুয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী রুজু করা হয়েছে বলে জানান।