পেকুয়ায় অতর্কিতে বসতি উচ্ছেদে ৩ অসহায় পরিবারের মানবেতর জীবনযাপন

6544.jpg

পেকুয়া(কক্সবাজার)প্রতিনিধি |
পেকুয়ায় প্রভাবশালীর ইন্দনে ৩অসহায় পরিবারের বসতি উচ্ছেদ ও মালামাল তছনছের গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘঠেছে, গতপরশু মঙ্গলবার উপজেলার টইটং ইউনিয়নের ধনিয়াকাটা পূর্বপাড়া এলাকার রিজার্ভ লোকালয়ে। ঘটনার বিবরণে জানা যায়, উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নের মৃত সুলতান আহমদের পুত্র এলাকায় বিএনপি জামাতের ডোনার হিসাবে পরিচিত বন ও পরিবেশ বিনাশি একাধিক ইটভাটির স্বত্বাধিকারী প্রভাবশালী ঠিকাদার আহমদ নবী স্থানীয় বনবিভাগের হাতিয়ে নেয়া জায়গা জবরদখলে ব্যর্থ হয়ে সংবাদকর্মীদের মিথ্যা তথ্য জানিয়ে বনবিভাগে অবৈধ বসতির হিড়িক শিরোনামে পত্র পত্রিকায় উদ্দেশ্য প্রনোদীত সচিত্র সংবাদ পরিবেশন করায়। ওই সংবাদের জের ধরে গতপরশু মঙ্গলবার স্থানীয় প্রশাসন যৌথ অভিযান চালিয়ে ৩অসহায়ের বসতি উচ্ছেদে বাধ্য হন। এনিয়ে পক্ষপাতদূষ্ট অভিযানে ৩অসহায় পরিবার উচ্ছেদ ও তাদের মালামাল তছনছে মানবেতর জিবনযাপনের জনশ্রুতি দেখা দেয়। খবর পেয়ে এ প্রতিবেদকের সরেজমিনকালে সাংবাদিকের উপস্থিতি জানতে পেরে উচ্ছেদের শিকার স্থানীয় মৃত কামাল হোসনের পুত্র কৃষক মোঃ মিয়া, নিরুদ্দেশ দিনমজুর জমিরের স্ত্রী সাহানা ও মো. শরীফের পুত্র রিক্সা চালক নুরুল আমিনের দীর্ঘদিনের রিজার্ভ ভোগদখলীয় বসতি উচ্ছেদ ও মালামাল তছনছ করা হয়েছে। উচ্ছেদকালে অভিযান পরিচালনাকারীদের কাছে নিজেদের সহায় সম্বলহীন অসহায় ভুমিহীনত্ব ও অনিশ্চিত জিবনযাত্রার বিষয়ে আকুতি জানিয়েও ব্যর্থ হই। এমনকি উচ্ছেদকালে শুধু তাদের ঘরই ভাংচুর করা হয়নি বিভিন্ন মালামালও তছনছ করে ব্যাপক ক্ষতি সাধন করা হয়। এসময় তারা আরো জানান, ভুমিহীন পরিবার হিসাবে আমরা স্থানীয় কালু মিয়ার পুত্র সমাজকর্মী আওয়ামীলীগ নেতা জহির উদ্দিনের সাহায্য চাইলে তিনি তার দীর্ঘদিনের রিজার্ভ ভোগদখলীয় স্বত্বে আমাদের পূণর্বাসনের সূযোগ দেন। এসময় আমাদের বসতি গড়তে স্থানীয় বারবাকিয়া বনবিভাগের বর্তমান বিট কর্মকর্তার দ্বারস্থ্য হলে বনবিভাগের জায়গায় বসতি গড়ায় ম্যানেজ হিসাবে মোটাংকের উৎকোচ হাতিয়ে নেন। কিন্তু সম্প্রতি আমাদের ভোগদখলীয় বসতিতে প্রভাবশালী ভুমিদূস্য ঠিকাদার আহমদ নবীর লোলুপ দুষ্টির প্রেক্ষিতে স্থানীয় প্রশাসন পক্ষপাতদূষ্ট আচরনের মাধ্যমে উচ্ছেদ করে মানবেতর দিনাতিপাতের দিকে ঠেলে দিয়েছেন। এদিকে, স্থানীয় সমাজকর্মী ও আওয়ামীলীগ নেতা জহির উদ্দিনের স্ত্রী নূরতাজ বেগম জানিয়েছেন, প্রভাবশালী ভুমিদূস্য আহমদ নবীর সাথে আমার স্বামীর স্বত্ব বিরোধ চলে আসছিল। যার জের ধরে ৩অসহায়ের বসতি উচ্ছেদের পর এবার কর্তার অনুপস্থিতির সূযোগ নিয়ে আহমদ নবী আমার বাড়িতে অনধিকার অনুপ্রবেশ করে প্রকাশ্যে আমার শীলতাহানি, আমার কলেজ পড়–য়া মেয়েকে অপহরণ, আমার স্বামী জহির উদ্দিনের প্রাণনাশ ছাড়াও বাড়িঘর দখল করে নেবার প্রকাশ্যে হুমকি ধমকি হাকাবকা দিচ্ছেন। যা নিয়ে শীঘ্রই আমরা আইনের আশ্রয় সহায়তা চাইবো। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম ও মেম্বার হেলাল উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তারা বিষয়টি লোকমুখে অবগত হয়েছেন বলে জানান।