ছেলের দেয়া আগুনে দগ্ধ বাবার অবশেষে মৃত্যু

father_25558_1474433539.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক |
ছেলের বায়না ছিল নতুন মডেলের একটি মোটর সাইকেলের। তা না পেয়ে বাবা-মায়ের শরীরে আগুন দেয় ওই পাষণ্ড ছেলে। আর সেই আগুনে দগ্ধ বাবা শেষ পর্যন্ত মারা গেলেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

বুধবার ভোরে ফরিদপুরের বাসিন্দা ওই বাবা মারা যান। তার নাম এ টি এম রফিকুল হুদা (৪৮)।

রফিকুল হুদার ভাই এ টি এম সিরাজুল হুদা এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি সাংবাদিকদের জানান, ভোর চারটার দিকে রফিকুল মারা যান। এখন তার মরদেহ ঢাকা থেকে ফরিদপুরে নিয়ে আসা হবে।

এদিকে ছেলের দেয়া আগুনে পুড়ে বাবা মারা গেলেও পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো মামলা দায়ের করা হয়নি।

এ বিষয়ে ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার ওসি মো. নাজিম উদ্দিন বলেন, পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা না হলে পুলিশই বাদী হয়ে মামলা করবে।

গত বৃহস্পতিবার বিকালে ফরিদপুর শহরে নিজের মা-বাবার শরীরে আগুন দেয় ছেলে ফারদিন হুদা মুগ্ধ (১৭)। আগুনে তার মা সিলভিয়া হুদা সামান্য দগ্ধ হলেও বাবা রফিকুল হুদা গুরুতরভাবে দগ্ধ হন। পরে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।