Monday, January 17, 2022
Homeক্রাইমহ্নীলায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ ; ভূঁয়া খতিয়ান সৃজনে...

হ্নীলায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ ; ভূঁয়া খতিয়ান সৃজনে আপত্তি

বার্তা পরিবেশক : হ্নীলায় একটি বিরোধীয় জমিতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও প্রভাব খাটিয়ে একটি মহল স্থাপনা নির্মাণ করে যাচ্ছে। এছাড়া ভূঁয়া খতিয়ান সৃজনের খবর পেয়ে অপর পক্ষ লিখিত আপত্তি জানিয়েছে।

জানা যায়, সাম্প্রতিক সময়ে হ্নীলা পশ্চিম পানখালীর মরহুম সোনা আলীর পুত্র হোছাইন আহমদ মেম্বার এবং পশ্চিম সিকদার পাড়ার মৃত আজিম উল্লাহ ফকিরের পুত্র মৌলভী আব্দুল গফুরের মধ্যে জমি বিরোধ নিয়ে মামলা,পাল্টা মামলা ও বিরোধীয় জমিতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অব্যাহত রয়েছে। এরই মধ্যে মৌলভী আব্দুল গফুর প্রভাব খাটিয়ে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অব্যাহত রেখেছে। এছাড়া দক্ষিণ হ্নীলা মৌজার নামজারী ও জমাভাগ মামলা নং-১৯৯৫(X1-1) ২০২১/২২ এর অধিন বিএস ৭২নং খতিয়ানের সৃজিত বিএস ২৯৭০নং খতিয়ানের বিএস ৪০৫৭নং দাগের ও দিয়ারা ৪৫৮নং খতিয়ানের ১২০৫নং দাগের নামজারী করার জন্য সহকারী কশিমনার ভূমি বরাবর আবেদন করে। এই ভূঁয়া খতিয়ান সৃজনের খবর পেয়ে হোছাইন আহমদ মেম্বার লিখিত আপত্তি জানিয়েছেন।

এতে তিনি বলেন, নিম্ন তফশীল বর্ণিত বি,এস ৭২নং খতিয়ানের রেকর্ডীয় মালিক আজম উল্লাহ ফকির পিতা মৃত ছমি উদ্দিন সাং-পশ্চিম সিকদারপাড়া, হ্নীলা, টেকনাফ, কক্সবাজার মরণে তাহার পুত্র আব্দুল গফুর কন্যা আমিনা খাতুন এবং স্ত্রী উলুমা খাতুন কিসমত মালিক সুত্রে প্রাপ্ত। দিয়ারা জরিপে উপরোক্ত আজম উল্লাহর ওয়ারিশগণের উপরোল্লিখিতদের নামে রেকর্ড হয়। তাদের নিকট হতে বিগত ৭/৯/১৯৯১ ইং তারিখে ১২২৫নং দলিল মূলে ১। আব্দুল কাদের ২৷ আব্দুল শুক্কুর উভয় পিতা অজি উল্লাহ সাং নিজ নামে খরিদা দখল মোতাবেক ২৯৭০নং বি,এস খতিয়ান সৃজিত হয়। উক্ত খরিদদার আব্দুল শুক্কুর হইতে বিগত ১৯/৫/২০২১ ইং তারিখে ১৪৬৯নং দলিল মূলে আমি আবেদনকারীর নামে খরিদা। কিন্তু ইতিমধ্যে আমি আবেদনকারীর অজান্তে একই খতিয়ানের এবং একই দাগের জমি নিয়ে ১৯/৫/২০২১ ইং তারিখে ১৪৪০,১৪৪১ নং নতুন করে ২টি হেবা দলিল সৃজন করে ৪০২৮ ও ৪০৩০(৯)/ ২০২০-২০২১ ইং মূলে নামজারী আবেদন করে। উপরোক্ত আবেদনের বিরুদ্ধে আমি আবেদনকারী ৩৮৬নং আপত্তি করিলে গত ২৯/১২/২১ ও ১০/২/২০২২ ইং তারিখে শুনানীর দিন ধার্য্য করা হয় এবং আমি নির্দিষ্ট ধার্য্য তারিখে শুনানীর জন্য হাজির হয়ে জানিতে পারি যে,আমার অনুপস্থিতিতে এবং অজান্তে আপত্তিকৃত মামলা ২টি খারিজ করা হয়েছে। নতুন ১৯৯৫(X1-1)২০২১/২২নং মামলা মূলে নামজারীর আবেদন করা হয়েছে। যাহা বিজ্ঞ সহকারী জজ আদালত টেকনাফ কক্সবাজারে অপর ৫/২২নং মামলা হয়েছে ও নিষেধাজ্ঞা জারী করা হয়েছে। তাই উপরোক্ত খতিয়ানের ও দাগের জমি নিয়ে এবং জমাভাগ মামলা নং-১৯৯৫(X1-1) ২০২১/২২ এর অধিন বিএস ৭২নং খতিয়ানের সৃজিত বিএস ২৯৭০নং খতিয়ানের বিএস ৪০৫৭নং দাগের ও দিয়ারা ৪৫৮নং খতিয়ানের ১২০৫নং দাগের নামজারী না করতে একান্ত মর্জি কামনা করেন।

উক্ত বিরোধীয় জমির তফশীল :-দক্ষিণ হ্নীলা মৌজা,বি,এস খতিয়ান নং-৭২,২৯৭০,বি,এস দাগ নং-৪০৫৭, দিয়ারা খতিয়ান নং-৪৫৮,দিয়ারা দাগ নং-১২০৫ এবং জমির পরিমাণ-০.০৩৭৫একর।

এই ব্যাপারে টেকনাফ মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ আব্দুল আলিম জানান,আদালতে নির্দেশনা বাস্তবায়নে পুলিশ কাজ করবে। তবে আদালতের আইন অমান্য করে কেউ স্থাপনা নির্মাণ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

টেকনাফ সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ এরফানুল হক চৌধুরী বলেন,বাদীপক্ষে আব্দুল গফুর এবং ফাতেমার নামে খতিয়ান সৃজন না করতে একটি লিখিত আবেদন করা হয়েছে। আবেদনের প্রেক্ষিতে উক্ত নামজারী মামলা স্থগিত রাখা হবে। ###

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments