মালয়েশিয়ায় রোহিঙ্গা শিবিরে দাঙ্গা ; পালাতে গিয়ে নিহত ৬

: নুরুল করিম রাসেল
প্রকাশ: ২ years ago

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : মালয়েশিয়ার একটি রোহিঙ্গা শিবিরে দাঙ্গার ঘটনা ঘটেছে। শিবির থেকে পালানোর সময় মহাসড়কে গাড়ির নিচে চাপা পড়ে নিহত হয়েছে শিশুসহ ছয় রোহিঙ্গা। বুধবার সুঙ্গাই বাকাপ অস্থায়ী অভিবাসী আটককেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, স্থানীয় সময় ভোর ৫টার দিকে সুঙ্গাই বাকাপ ইমিগ্রেশন আটককেন্দ্র সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় আটককেন্দ্রটি থেকে ৫২৮ জন রোহিঙ্গা পালাচ্ছিলেন। এদের মধ্যে ছয় জন দ্রুত পালাতে গিয়ে মহাসড়কের ওপর দিয়ে দৌঁড় দেন। দ্রুতগামী গাড়ির চাপায় তারা সবাই নিহত হয়। এদের মধ্যে দুই পুরুষ ও দুই নারী ছাড়াও দুটি শিশু রয়েছে। পলাতকদের মধ্যে বেশ কয়েক জনকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।

এদিকে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দাতুক সিরি হামজাহ জাইনুদিন এ ঘটনা তদন্তের জন্য ইমিগ্রেশন বিভাগ এবং পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়া পলাতক রোহিঙ্গাদের খুঁজে বের করতে সব কয়টি আইনপ্রয়োগকার সংস্থাকে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

হামজাহ জানান, পালিয়ে যাওয়া ৫২৮ জন রোহিঙ্গা শরণার্থীকে ২০২০ সালে মালয়েশিয়ার জলসীমায় অনুপ্রবেশের সময় গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। পরে তাদেরকে ল্যাংকাউইয়ের একটি আটক শিবির থেকে সুঙ্গাই বাকাপে আনা হয়। অবৈধভাবে এবং বৈধ কাগজপত্র ছাড়া মালয়েশিয়ায় প্রবেশ করে অভিবাসন আইন লঙ্ঘনের জন্য তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।