Monday, August 8, 2022
Homeক্রাইম(ফলোআপ) : হ্নীলায় গুলিবিদ্ধ ডাম্পার চালকের মৃত্যু ; নববধুর সুখের স্বপ্ন ভেঙ্গে...

(ফলোআপ) : হ্নীলায় গুলিবিদ্ধ ডাম্পার চালকের মৃত্যু ; নববধুর সুখের স্বপ্ন ভেঙ্গে দিল স্বশস্ত্র দূবৃর্ত্তরা!

সাদ্দাম হোসাইন : হ্নীলায় স্বশস্ত্র ছিনতাইকারী চক্রের হাতে গুলিবিদ্ধ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ডাম্পার চালক হাবিব উল্লাহ মৃত্যুবরণ করেছে। এই মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার পর হাবিব উল্লাহর নববধুর স্বপ্ন ভাঙ্গার যন্ত্রণাসহ পরিবারের সকলের মধ্যে কান্নার রোল পড়েছে।

পারিবারিক সুত্র জানায়,৪ঠা আগষ্ট ভোর ৬টারদিকে চমেক হাসপাতালে জরুরী বিভাগে চিকিৎসাধীন অবস্থায় টেকনাফের হ্নীলা পশ্চিম লেদা নুরালী পাড়ার মোহাম্মদ হোছনের পুত্র ডাম্পার চালক হাবিব উল্লাহ (২৩) মৃত্যুবরণ করেন। তার মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়ার পর মা-বাবা, স্ত্রী,৩বোন ও ৫ ভাইসহ পাশর্^বর্তী এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। সে ৬ভাইয়ের মধ্যে ৪র্থ সন্তান। চলতি বছরের শুরুতে স্থানীয় ফোরকানের মেয়ে রওনক জাহানকে বিয়ে করে উভয়ে সুখের স্বপ্ন গড়ার স্বপ্ন দেখেছিল। নিহত হাবিব উল্লাহ একটি ডাম্পার চালিয়ে আয়-রোজগার করতো।

উল্লেখ্য,গত ১লা আগষ্ট রাত সাড়ে ৭টারদিকে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা পশ্চিম লেদা নুরালী পাড়ার মোহাম্মদ হোছনের পুত্র ডাম্পার চালক হাবিব উল্লাহ বাড়ি হতে বের হয়ে গাড়ির শ্রমিককে বেতনের টাকা দিতে দোকানে যাচ্ছিল। এসময় স্থানীয় মোঃ নুরের পুত্র ছৈয়দ নুর,মকতুল হোছনের পুত্র আক্তার হোছন, মোঃ হাসিমের পুত্র মোঃ রাসেল, আবুল হোছনের পুত্র আব্দুর রহমান, পূর্ব লেদার আবুল কালামের পুত্র মোঃ নাসিম, মোঃ জমিল প্রকাশ টুনুর পুত্র রবিউল হাসান, আবুল হোছনের পুত্র আব্দুল আঊয়াল ওরফে গুরা পুতিয়া, রোহিঙ্গা কবির হোছনের পুত্র বেলাল হোছন এবং রোহিঙ্গা নুরুল হক প্রকাশ লাল বুইজ্জার পুত্র জুনাঈদ ওরফে লাম্বাইয়াসহ স্বশস্ত্র একটি গ্রুপ তার পকেটের টাকা ও মুঠোফোন হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। এসময় সে বাঁধা দিয়ে তর্কে জড়িয়ে পড়ে। এক সময় ডাকাত বলে চিৎকার দিলে সামনে থেকে গুলিবর্ষণ করে দূবৃর্ত্তরা পাহাড়ের দিকে পালিয়ে যায়। তাকে দ্রুত উদ্ধার করে লেদা আইএমও হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর গভীর রাতে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়। সেখানে অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় ২রা আগষ্ট ভোরে গুলিবিদ্ধ হাবিব উল্লাহকে চমেক হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ ভোরে সে ইন্তেকাল করে। আইনী প্রক্রিয়া শেষে মৃতদেহ বাড়িতে আনার প্রস্তুতি চলছে। বাড়িতে পৌঁছলেই দাফনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এই মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার পর নববধু রওনক জাহানের কান্নায় আকাশ-বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে। তার সাথে বছরের শুরুতে আনুষ্ঠানিকভাবে হাবিব উল্লাহর বিয়ে হয়। হঠাৎ স্থানীয় স্বশস্ত্র দূবৃর্ত্ত ছিনতাইকারী-ডাকাত দলের গুলিতে তার স্বামী মারা যাওয়ায় তার লালিত স্বপ্ন ভেঙ্গে গেছে। সে কান্নায় কোন ধরনের মন্তব্য করতে পারেনি।

হ্নীলা ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী বলেন, অত্র ইউনিয়নের প্রত্যন্ত এলাকার অবৈধ অস্ত্রধারীদের আইনের আওতায় এনে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ফিরিয়ে আনা হোক।
###

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments