নির্বাচিত হয়েই কাশ্মীর ইস্যুতে ভারতকে বার্তা দিলেন শাহবাজ

: নুরুল করিম রাসেল
প্রকাশ: ২ years ago

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে গতকাল সোমবার নির্বাচিত হওয়ার পরপরই উদ্বোধনী ভাষণে কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিলের বিষয়টি উত্থাপন করেছেন শাহবাজ শরিফ। তাঁর অভিযোগ, উপত্যকার জনগণ রক্তক্ষরণের মধ্যে রয়েছে এবং পাকিস্তান প্রতিটি আন্তর্জাতিক মঞ্চে সেখানকার বিষয়টি উত্থাপনের পাশাপাশি কাশ্মীরিদের ‘কূটনৈতিক ও নৈতিক সমর্থন’ দেবে।

পাকিস্তানে তিনবারের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের ভাই শাহবাজ শরিফ আরো বলেছেন, তিনি ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক চেয়েছেন, কিন্তু কাশ্মীর সমস্যার সমাধান ছাড়া তা অর্জন করা যাবে না।

তিনি আরো বলেছেন, প্রতিবেশী পছন্দের বিষয় নয়।
এটি এমন কিছু, যার সঙ্গে আমাদের থাকতে হবে এবং দুর্ভাগ্যবশত ভারতের সঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্ক শুরু থেকেই ভালো ছিল না।

২০১৯ সালের আগস্টে ভারত যখন ৩৭০ ধারা বাতিল করে দেয়, ওই সময় ‘গুরুতর এবং কূটনৈতিক প্রচেষ্টা’ না করার জন্য তিনি সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে আক্রমণ করেছেন।

তিনি বলেছেন, যখন ২০১৯ সালের আগস্টে জোরপূর্বক দখল করা হয়েছিল এবং ৩৭০ ধারা বাতিল করা হয়েছিল, তখন আমরা এ ব্যাপারে সর্বতোভাবে কী প্রচেষ্টা চালিয়েছি? … আমরা কূটনৈতিক দিক দিয়ে কী চেষ্টা করেছি? … কাশ্মীরের রাস্তায় কাশ্মীরিদের রক্ত ঝরছে এবং কাশ্মীর উপত্যকা তাদের রক্তে লাল হয়েছে।

শাহবাজ শরিফ বলেছেন, আমরা ভারতের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক চাই। তবে কাশ্মীর নিয়ে বিরোধের সমাধান না হওয়া পর্যন্ত টেকসই শান্তি অসম্ভব। … পাকিস্তান কাশ্মীরের জনগণকে রাজনৈতিক, কূটনৈতিক ও নৈতিক সমর্থন অব্যাহত রাখবে।
তিনি আরো বলেছেন, আমরা প্রতিটি ফোরামে কাশ্মীরি ভাই-বোনদের জন্য আওয়াজ তুলব। আমরা তাদের কূটনৈতিক ও নৈতিক সমর্থন দেব।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে কাশ্মীর সমস্যা সমাধানের জন্য এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন শাহবাজ। তিনি বলেছেন, যাতে করে দুই দেশ দারিদ্র্য, বেকারত্ব, ওষুধের ঘাটতি এবং অন্যান্য সমস্যা মোকাবেলায় মনোনিবেশ করতে পারে।

এদিকে নবনির্বাচিত পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফকে অভিনন্দন জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শাহবাজ শরিফকে অভিনন্দন জানানোর সময় মোদি বার্তা দিয়েছেন, সন্ত্রাসমুক্ত অঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীলতা চায় ভারত।
সূত্র : এনডিটিভি।