Monday, January 17, 2022
Homeটেকনাফটেকনাফে স্বামীর ছুরিকাঘাতে স্ত্রী খুন : স্বামী পলাতক

টেকনাফে স্বামীর ছুরিকাঘাতে স্ত্রী খুন : স্বামী পলাতক

রাশেদ মাহমুদ রাসেল, টেকনাফ |
টেকনাফে রশিদা বেগম (৩০) নামে ৪ সন্তানের জননী ছুরিকাঘাতে খুন হয়েছে। এ ঘটনায় স্বামী মোঃ হোসন প্রকাশ হোসন মিস্ত্রি পলাতক রয়েছে।
২২ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার ভোরে পৌরসভার পুরাতন পল্লান পাড়া এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় হত্যাকান্ডের এ ঘটনা ঘটে।
নিহতের ভাই আব্দুর রহমান জানান, তার বোন পার্শ্ববতী আব্দুস শুক্কুরের ভাড়া বাসায় পূর্বের স্বামীর ৪ সন্তানসহ দ্বিতীয় স্বামীর সাথে বসবাস করতো।
বৃহস্পতিবার ভোর ৪টার দিকে ভাড়া বাসার মালিক বোনের মুমুর্ষবস্থার খবর জানালে সেখানে গিয়ে দেখেন পিঠে ছুরিকাঘাত হওয়া রশিদা ছটফট করতে থাকে। এসময় তাকে দ্রুত টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক কক্সবাজার রেফার করেন। কক্সবাজার নেওয়ার পথে হ্নীলা এলাকায় পৌঁছলে ভোর ৫টার দিকে সে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। পড়ে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করেন।
স্বামীর ছুরিকাঘাতে তার বোনের মৃত্যু ঘটেছে বলে ধারনা করছেন তিনি। তবে কি কারনে এ হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে তা তাদের বোধগম্য হচ্ছে না।
এ ঘটনায় স্বামী মোঃ হোসন পলাতক রয়েছে।
নিহতের শিশু পুত্র রিদুয়ান জানায়, রাতে তাদের সৎ পিতা বাহির থেকে এসে সবাইকে কোল্ডস ড্রিংক খেতে দেয়। এর পর সে আর কিছু বলতে পারেনা, ভোর রাতের দিকে মাকে ছুরিকাঘাত অবস্থায় ফ্লোরে কাতরাতে দেখে পার্শ্ববর্তী রিকসা গ্যারেজে থাকা বড় ভাইকে ডেকে আনে।
এদিকে নিহতের সন্তান ও আত্মীয় স্বজনদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ৩ বছর আগে উখিয়া উপজেলার কোটবাজার তুতুরবিল এলাকার নুর মোহাম্মদের ছেলে রাজমিস্ত্রি মোঃ হোসনের সাথে বিয়ে হয় রশিদার। বিয়ের মাস ছয়েক পর একটি মানব পাচার মামলায় সে কারাগারে যায়। প্রায় আড়াই বছর হাজত বাসের পর মাস ছয়েক পূর্বে সে ছাড়া পেয়ে পুনরায় স্ত্রীর সাথে ঘর সংসার করতে থাকে। এর কিছুদিন পর স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া বিবাদ হলে আত্মীয় স্বজনের মধ্যস্থতায় তা সমাধান হয়।
টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল মজিদ জানান, এব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে।

নিহত রশিদার ৪ সন্তান
নিহত রশিদার ৪ সন্তান

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments