Wednesday, January 19, 2022
Homeটপ নিউজটেকনাফের বাহারছড়ায় ইয়াবার চালান ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগে যুবককে অপহরণ ও মুক্তিপন আদায়...

টেকনাফের বাহারছড়ায় ইয়াবার চালান ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগে যুবককে অপহরণ ও মুক্তিপন আদায় : স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর কাছে লিখিত অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক :
টেকনাফে আইন শৃংখলা বাহিনীর হাতে ইয়াবার চালান ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগে এক যুবককে অপহরণ করে মুক্তিপন আদায় ও মারধরের অভিযোগে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী বরাবরে লিখিত অভিযোগ প্রদান করেছেন অপহৃতের পিতা। একি সাথে পুলিশের আইজি, জেলা প্রশাসক, র‌্যাব-৭ সহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে অনুলিপি প্রদান করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্তদের ব্যাপারে কোন ব্যবস্থা নেয়নি বলেও অভিযোগ করা হয়েছে। গত ৩ নভেম্বর টেকনাফের উপকূলীয় বাহারছড়া ইউনিয়নের নোয়াখালী পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগে জানা যায়, গত ৩ নভেম্বর বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর বাজার এলাকা থেকে নোয়াখালী পাড়া এলাকার ফজল করিমের ছেলে মোঃ রফিক নামে এক যুবককে অপহরণ করে নিয়ে যায় বাহারছড়া ইউনিয়নের নোয়াখালী পাড়া এলাকার আমির হামজার ছেলে হোসন আহমদ, হাফেজ আহমদ, মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে আমির হোছন, মৃত রশিদ আহমদের ছেলে আতিক উল্লাহ, হাফেজ আহমদের ছেলে শহিদুল্লাহ, নবী হোছনের ছেলে মিজান, ছৈয়দ হোসনের ছেলে মনিরা সহ সহযোগীরা।

অপহরণকারীরা রফিককে প্রকাশ্য বাজার হতে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে আটকে রাখে। পরে রফিকের স্ত্রীর কাছে মুক্তিপন দাবী করে। এ ঘটনায় রফিকের পিতা অপহরণকারীদের কাছে কারন জানতে চাইলে তারা জানায়, তার ছেলে তাদের অনেক ইয়াবা ধরিয়ে দিয়েছে। কাজেই তাকে উক্ত ইয়াবার ক্ষতিপূরন দিতে হবে। এইজন্য তারা ২ দিন সময় বেঁধে দেয়। না হলে ছেলেকে আর পাওয়া যাবেনা বলে হুমকি দেয়। এতে ভীত হয়ে রফিকের স্ত্রী ৭০ হাজার টাকা সংগ্রহ করে অপহরণকারীদের হাতে তুলে দিলে তারা রফিককে ছেড়ে দেয়। এসময় অপহরণকারীরা রফিককে গভীর পাহাড়ে আটকিয়ে রেখে প্রচুর মারধর করে। বাহারছড়া ফাঁড়ী পুলিশ অভিযুক্তদের একজনকে আটক করলেও তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। এমনকি স্থানীয় সালিশে চিকিৎসার জন্য রফিকের পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরন দেওয়ার জন্য সাব্যস্থ করলেও এই চক্রটি ক্ষতিপূরন না দিয়ে উল্টো রফিকের পরিবারকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি দিতে থাকলে পুরো পরিবারটি অসহায় হয়ে পড়ে।

এতে বাধ্য হয়ে রফিকের পিতা ফজল করিম স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী সহ বিভিন্ন প্রশাসনিক দপ্তরে লিখিত অভিযোগে
উল্লেখিত মাদক ব্যবসায়ী, চাঁদাবাজ ও অবৈধ অস্ত্রধারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আবেদন জানান।

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments