বাবার ইচ্ছা পূরণে ছেলে বউ নিলেন হেলিকপ্টারে করে

image-170576-1544029060.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : বাবার ইচ্ছা পূরণ করতে মাদারীপুরের শিবচরে হেলিকপ্টারে চড়ে এসে বিয়ে করে বউ নিয়ে গেলেন বর অ্যাডভোকেট মো. উজ্জল মিয়া। এই বিয়েকে কেন্দ্র করে বিয়েবাড়ি সহ আশপাশের গ্রামজুড়ে ছিল উৎসব মুখর পরিবেশ।

এলাকাবাসী কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, উপজেলার কাদিরপুর ইউনিয়নের ডিগ্রিরচর গ্রামের প্রবাসী দেলোয়ার হোসেন চোকদারের মেয়ে সুমাইয়া আক্তার লিজা। তার সঙ্গে শরিয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার বিলদেওয়ানিয়া গ্রামের ব্যবসায়ী মজিবুর রহমান মোল্লার ছেলে অ্যাডভোকেট মো. উজ্জল মিয়ার সঙ্গে গত ২২ জুন বিয়ের কাবিন হয়। বর উজ্জল পরিবারসহ ঢাকার লালবাগে বসবাস করেন। উজ্জলের বাবার আগে থেকেই ইচ্ছে ছিল তার একমাত্র ছেলেকে হেলিকপ্টারে চড়িয়ে শ্বশুর বাড়ি পাঠিয়ে ছেলের বউ আনবেন। সেই মোতাবেক বাবার ইচ্ছা পূরণে উজ্জল আজ বুধবার দুপুরে প্রায় ২০০ বরযাত্রীসহ কনেকে নিতে শিবচর আসেন।

বরযাত্রীরা তিনটি বাসে চড়ে কনে বাড়ি আসলেও বর আসেন হেলিকপ্টারে চড়ে। প্রত্যন্ত গ্রামে হেলিকপ্টারে বর আসাকে কেন্দ্র করে আজ সকাল থেকেই ছিল উৎসব মুখর পরিবেশ। বর-কনের ছবি সংবলিত ব্যানার দিয়ে একাধিক গেট সাজানো হয়েছিল। ছিল বাদ্যকার দলসহ নানান আয়োজন। ব্যতিক্রমধর্মী এই আয়োজন সামাল দিতে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান বি এম জাহাঙ্গীর হোসেন ও পুলিশের একটি দল।

এ বিষয়ে বর অ্যাডভোকেট উজ্জল মিয়া মুঠোফোনে বলেন, ‘বাবার ইচ্ছা পূরণ করতেই বাংলা ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের হেলিকপ্টারটি ভাড়া আনা হয়। হযরত শাহজালাল আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দর থেকে রওনা দিয়ে নববধূকে নিয়ে আবার সেখানেই ফিরে এসেছি।’

কাদিরপুর ইউপি চেয়ারম্যান বি এম জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘হেলিকপ্টারে চড়ে এই বিয়েকে কেন্দ্র করে আমাদের গ্রামে সকাল থেকেই উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। বর নির্বিঘ্নে এসে নববধূকে নিয়ে ফিরে গেছে।’
80Shares

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top