পরিচালক আমজাদ হোসেন লাইফ সাপোর্টে

Amjad-Hossain-Filmmaker_00.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : ব্রেইন স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর একটি হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে আছেন চিত্রপরিচালক আমজাদ হোসেন। রোববার সকালে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে তেজগাঁওয়ের ইমপালস হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় বলে জানান তার পুত্র সোহেল আরমান।

হাসপাতালের চিকিৎসক শহীদুল্লাহ সবুজের সার্বিক তত্ত্বাবধানে তার চিকিৎসা চলছে বলে জানা গেছে। শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় রেখে এ পরিচালককে সকালেই নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে নেওয়া হয়।

নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রের সিনিয়র মেডিকেল অফিসার মহিউদ্দিন মাজেদ চৌধুরী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, উনার বড় ধরনের স্ট্রোক হয়েছে। মাথার মধ্যে রক্তনালী সংকুচিত হয়ে গেছে। হাসপাতালে ভর্তির পরপরই পরপরই সিটিস্ক্যান করে রোগটি নির্ণয় করা হয়েছে।

আপাতত এ পরিচালককে ৭২ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, “একটু সময় না গেলে এ ধরনের স্ট্রোকের অবস্থা পুরোপুরি বোঝা যায়। কারণ ব্রেইন ফুলে উঠে দুই-তিনদিন পরে। পরশু আবারও সিটিস্ক্যান করব। ব্রেইন যদি ফুলে যায় সেক্ষেত্রে পরবর্তীতে অপারেশন করার প্রয়োজন হতে পারে মাথায়।”

মাস ছয়েক আগেও থাইল্যান্ডের একটি হাসপাতালে সুকুমভিত হাসপাতালে তার অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আগে থেকেই উনার বার্ধক্যজনিত কিছু জটিলতা ছিল। হার্টেও সমস্যা রয়েছে। এটার জন্য কিছু ঔষুধও সেবন করছিলেন তিনি। সমস্যা আছে কিডিনিতেও।

১৯৪২ সালের ১৪ অগাস্ট জামালপুরে জন্ম নেন তিনি। পরিচালনার বাইরে লেখক, অভিনেতা হিসেবেও তিনি পরিচিত।

১৯৬১ সালে ‘হারানো দিন’ চলচ্চিত্রে অভিনয় দিয়ে চলচ্চিত্রে আগমন করেন। পরে তিনি চিত্রনাট্য রচনা ও পরিচালনায় মনোনিবেশ করেন। ১৯৬৭ সালে মুক্তি পায় তার পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র ‘খেলা’। ‘ভাত দে’, ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’সহ বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে দর্শক ও বোদ্ধামহলে বেশ প্রশংসিত হয়েছেন তিনি।

গান লেখায়, চিত্রনাট্যে ও পরিচালনায় চারবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন তিনি।

একুশে পদক ও স্বাধীনতা পুরস্কারেও ভূষিত হয়েছেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top