একাদশ সংসদ নির্বাচনে পুনঃতফসিল: ৩০ ডিসেম্বর ভোট

cec-222.jpg

অনলাইন ডেস্ক |

প্রধান নির্বাচন কমিশনার নূরুল হুদা। ছবি সংগৃহীত
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পুনঃতফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। নতুন তফসিল অনুযায়ী ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

আজ সোমবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে নির্বাচন কমিশনের ইভিএম প্রদর্শনীতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা এ ঘোষণা দেন।

ঘোষিত নতুন তফসিল অনুযায়ী, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সাত দিন পেছাল। মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ২৮ নভেম্বর।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট, যুক্তফ্রন্টসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও জোটের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ভোটের নতুন তারিখ নির্ধারণ করল নির্বাচন কমিশন।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার একাদশ সংসদ নির্বাচনে তফসিল ঘোষণা করেছিলেন সিইসি। আগের তফসিল অনুযায়ী, ২৩ ডিসেম্বর ভোট হওয়ার কথা ছিল।

ভোটের তারিখ পিছিয়ে দিতে গতকাল রোববার সকালে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবর চিঠি পাঠায় সাবেক রাষ্ট্রপতি বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন জাতীয় যুক্তফ্রন্ট। তাদের দাবি ছিল- নির্বাচন ২৩ ডিসেম্বর না করে এক সপ্তাহ পিছিয়ে দেয়া হোক।

আর নির্বাচন এক মাস পিছিয়ে দিতে শনিবার বিকালে সিইসিকে চিঠি দেয় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

রোববার ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, নির্বাচন কমিশন নির্বাচন পেছালে তাদের আপত্তি নেই।

চিঠি পাওয়ার পর গতকাল বিকালে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেছিলেন, নির্বাচন পেছানোর বিষয়ে আগামীকাল (সোমবার) সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর দাবির পরিপ্রেক্ষিতে নির্বাচন এক সপ্তাহ পেছানোর সিদ্ধান্ত নিল নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচন পেছানোর ঘোষণায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা বলেন, আমরা তফসিল পুনর্নির্ধারণের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত মনোনয়নপত্র দাখিল করা যাবে। ৩০ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণ হবে।

এ অনুষ্ঠানের আগে সকালে কমিশনের বৈঠকে তফসিল পুনর্নির্ধারণের এ সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানান তিনি।

পুনঃতফসিলের বিষয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, সকালে অন্য কমিশনারদের সঙ্গে আলোচনা করে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই, প্রতীক বরাদ্দ, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের পরিবর্তিত তারিখ আগামীকাল (১৩ নভেম্বর) জানিয়ে দেয়া হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top