বঙ্গবন্ধুর খুনি রশিদের জামাতার তথ্য প্রযুক্তি আইনের অপরাধ স্বীকার

Fuad-Zaman.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : ফেইসবুকে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি এবং তার আত্মস্বীকৃত খুনিদের প্রশংসার অভিযোগে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে দায়ের করা মামলায় অপরাধ স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন ফুয়াদ জামান। ফুয়াদ জামান জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনি অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট কর্নেল সুলতান শাহরিয়ার রশিদের মেয়ে শেহনাজ রশিদ খানের স্বামী।

তিনদিন হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ফুয়াদকে সোমবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের এসআই পার্থ প্রতীম ব্রহ্মচারী।

ফুয়াদ জামান ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে সম্মত হওয়ায় তা রেকর্ড করার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা।

আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম সত্যব্রত শিকদার তার জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

এরপর তাকে কারাগারে পাঠানো হয় বলে জানান সংশ্লিষ্ট থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা মো. মকবুলুর রহমান।

মহানগর পুলিশের অপরাধ, তথ্য ও প্রসিকিউশন বিভাগ থেকে জানা গেছে, ঘটনা সম্পর্কে সবিস্তার বর্ণনা করে অপরাধ স্বীকার করেছেন।

বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদের আহছানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সদস্য মোহাম্মদ নাজমুল হাসান পিয়াস গত ২৩ আগস্ট ধানমণ্ডি মডেল থানায় তথ্যপ্রযুক্তি আইনে ওই মামলা করেন।

গত ১৩ সেপ্টেম্বর ফুয়াদকে রাজধানীর হাতিরঝিল এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরদিন তাকে তিদিনের রিমান্ডে পায় পুলিশ।

মামলার এজাহারে বলা হয়, বঙ্গবন্ধুর নৃশংস হত্যাকাণ্ড নিয়ে কটূক্তি করে এবং আদালতের রায়ে প্রমাণিত হত্যাকারীদের প্রকাশ্যে সমর্থন জানিয়ে গত ১৫ অগাস্ট ফেইসবুকে একটি পোস্ট দেন ফুয়াদ।

বিষয়টি জাতির পিতার প্রতি ‘চরম অসম্মান ও মানহানিকর এবং উসকানিমূলক’ বলে অভিযোগ করা হয় মামলায়।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top