মহাসচিব পরিবর্তন করতে তারেককে শীর্ষ নেতাদের ইন্ধন

-1.jpg

নিউজ ডেস্ক: টানাপোড়েনে জর্জরিত ও বিভক্ত বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের একপক্ষের বেশকিছু নেতৃবৃন্দের সাথে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানের মতবিরোধ নতুনমাত্রায় পৌঁছেছে। আর এই সুযোগে মহাসচিব পরিবর্তন করতে তারেক রহমানকে ইন্ধন জোগাচ্ছেন দলের আরেক পক্ষের সিনিয়র নেতারা। মহাসচিব মির্জা ফখরুলের স্থলে নেতারা দেখতে চাইছে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে।

দলের বিশ্বস্ত একাধিক সূত্র মারফত জানা যায়, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় কারাদণ্ড প্রাপ্ত বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারান্তরীণ হওয়ার পর বিভিন্ন ইস্যুতে বিভক্ত হয় বিএনপি। শীর্ষ নেতাদের মধ্যে দৃশ্যত ঐক্য দেখা গেলেও তলে তলে রয়েছে অন্তর্দ্বন্দ্ব। আর সেই দ্বন্দ্বের প্রেক্ষিতে দলের রিজভীপন্থী নেতারা বিএনপি মহাসচিব পরিবর্তন করার জন্য ইন্ধন জোগাচ্ছেন।

এদিকে বিএনপির বর্তমান পরিস্থিতি অনুযায়ী, দলের শীর্ষ পর্যায়ের কতিপয় নেতৃবৃন্দের দায়িত্ব পালনে অপারগতা তারেকের নিকট প্রকাশ করে তাদেরকে দল থেকে বাদ দেয়া এবং তাদের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে তারেক রহমানকে নিজ ইচ্ছানুযায়ী দল পরিচলনা করার জন্য অনুরোধ করেছেন।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কেন্দ্রীয় বিএনপির দায়িত্ব থেকে বাদ পড়ার আশঙ্কায় থাকা একজন সিনিয়র নেতা বলেন, বেগম জিয়া কারান্তরীণ হওয়ার পর থেকেই আমাদের কোনো মতামতের মূল্যায়ণ না করে রিজভীপন্থী নেতারা তারেক সাহেবের কাছে ভালোভাব দেখিয়েছে। বিএনপির বিভক্তির শুরু থেকে আমরা আশঙ্কা করছিলাম যে, যেকোন সময় আমরা দলে গুরুত্বহীন হয়ে পড়বো। আর তা সত্যি হতে যাচ্ছে। সবচেয়ে দুঃখের বিষয় হলো দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুলের মতো একজন রুচিশীল রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বকে পদ থেকে অপসারণ করার ষড়যন্ত্র করছেন কিছু বিপথগামী নেতা।

বিশ্লেষকরা বলছেন, বিএনপির দুর্বল নেতৃত্বের কারণে এবং দলের মধ্যে টানাপোড়েনের যে সূচনা হয়েছিলো তা ক্রমেই বিরূপ আকার ধারণ করে বাংলাদেশের রাজনীতিতে নিজেদের অবস্থান অগ্রহণযোগ্য করেছে। ক্রমেই হারাতে হচ্ছে প্রধান বিরোধী রাজনৈতিক দলের খেতাবও। এভাবে চলতে থাকলে বিএনপি নিশ্চিহৃ রেখা পেতে বেশি সময় লাগবে না।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top