টেকনাফে দুই ভাইকে এলোপাতাড়ী কুপিয়েছে সন্ত্রাসীরা

mizan.jpg

নিজস্ব প্রতিনিধি, টেকনাফ টুডে ডটকম : টেকনাফের মহেষখালীয়া পাড়া এলাকায় দুই ভাইকে এলোপাতাড়ী কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেছে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা।

বৃহস্পতিবার দিনগত রাত ১১টার দিকে মহেষখালীয়া পাড়া এলাকায় একটি দোকানের ভিতর এ হামলার ঘটনা ঘটে।

হামলায় গুরুত্বর আহত হয় ওই এলাকার আবুল বশরের দুই ছেলে মিজানুর রহমান (৩০) ও সাইফুল ইসলাম(২২)।

স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ককসবাজার প্রেরণ করেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তাদেরকে চট্টগ্রাম নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে দুই জনের মধ্যে মিজানের অবস্থা আশংকাজনক। তার মাথা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে অসংখ্য দাড়ালো দায়ের কুপ রয়েছে। এছাড়া আহত সাইফুলের এক হাত দায়ের কুপে প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

আহত সহোদরের মাতা শামসুননাহার টেকনাফ টুডে কে জানান, টিভিতে বিশ্বকাপ ফুটবল খেলা দেখে স্থানীয় তৈয়ুবের দোকানে বসেছিল দুই ভাই। এসময় সন্ত্রাসীরা অতর্কিতে হামলা চালায়। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে হামলা হতে পারে বলে জানান তিনি।

প্রত্যক্ষদর্শী আব্দুর রহিম জানান, অস্ত্রধারীরা তৈয়ুবের দোকানে গিয়ে হামলা চালালে দুই ভাই পালাতে চেষ্টা করে, সন্ত্রাসীরা ধাওয়া করে তাদেরকে সেখানে গিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে পালিয়ে যায়। আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান তিনি।

একটি সূত্র জানিয়েছে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে অথবা সম্প্রতি ঘটে যাওয়া ওই এলাকায় একটি ইয়াবা লুটের ঘটনার যোগসূত্র থাকতে পারে আজকের এ ঘটনায়।

এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ রনজিত কুমার বড়ুয়া ঘটনাস্থল ও হাসপাতাল পরিদর্শন করেছেন।

তিনি জানান, সন্ত্রাসীদের অবিলম্বে খুঁজে বের করা হবে। সন্ত্রাসী যেই হউক রেহাই পাবে না।

প্রসঙ্গত টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মহেষখালীয়া পাড়া এলাকাটি ইতিমধ্যে সন্ত্রাসের জনপদ আখ্যা পেয়েছে। দুই বিবদমান গ্রুপের দ্বন্ধে বছর খানেকের মধ্যে ওই এলাকায় হামলা পাল্টা হামলায় ইতিমধ্যে এক বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র নিহত হয়েছে। অপরদিকে স্থানীয় ইউপি মেম্বারসহ আজকের হামলায় আহত দুই সহোদরের পিতা আবুল বশরও প্রতিপক্ষের হামলায় ইতিমধ্যে পঙ্গুত্ব বরন করেছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top