টেকনাফে গ্রামীণ ফোন নেটওয়ার্ক বিপর্যয়ে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের চরম ভোগান্তি

Teknaf-Pic-A-09-06-18.jpg

সাদ্দাম হোসাইন : টেকনাফে মনোরম বিজ্ঞাপন সর্বস্ব বিভিন্ন মোবাইল অপারেটর কোম্পানীর নেটওয়ার্ক বিপর্যয়ে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী সরকারী, বেসরকারী দপ্তর, অনলাইন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, স্থানীয় ও জাতীয় সংবাদপত্র সেবায় নিয়োজিত সংবাদকর্মীসহ ইন্টারনেট ব্যবহারকারী সাধারণ গ্রাহকেরা চরম হতাশ হয়ে পড়েছে। এই ব্যাপারে ভূক্তভোগীরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আন্তরিক সহায়তা কামনা করেছেন।
তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, সীমান্ত জনপদ টেকনাফের ৬টি ইউনিয়ন এবং একটি পৌর এলাকায় গ্রামীণ ফোন, রবি, বাংলা লিংক, এয়ারটেল ও টেলিটকসহ সুরম্য নজর কাড়া মোবাইল অপারেটর বিজ্ঞাপন সংম্বলিত আকর্ষণে গ্রাহক হওয়া লোকজন চরম ভোগান্তিতে রয়েছে। এসব অপারেটর সমুহের ধীরগতির কারণে হাজার হাজার ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা চরম ভোগান্তিতে পড়েছে। যার ফলে অনলাইন সম্বলিত কার্য্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে।
এই ব্যাপারে টেকনাফ টুডে ডটকমের সম্পাদক ও প্রকাশক নুরুল করিম রাসেল বলেন, আমরা নিউজ আপডেট করতে গ্রামীণ ফোন অপারেটরের সীম ব্যবহার করতাম। এখন নেটওয়ার্ক বিপর্যের কারণে কাজ-কর্ম ব্যাহত হওয়ায় অপারেটর পরিবর্তন করতে হচ্ছে। টেকনাফ নিউজ ডটকমের সম্পাদক ও প্রকাশক সাইফুল ইসলাম সাইফী জানান,নাম সর্বস্ব মোবাইল অপারেটর কোম্পানী গুলো মনোরম বিজ্ঞাপনের ফাঁদে ফেলে গ্রাহকদের হয়রানি করছে। টেকনাফ টাইমসের সম্পাদক ও প্রকাশক জসিম উদ্দিন টিপু জানান, এক সময়ের জনপ্রিয় মোবাইল অপারেটর এখন ভাল সার্ভিস না দেওয়ায় গ্রাহক হারাতে বসেছে। নাফ জার্নাল ডটকমের সম্পাদক নুর তাজুল মোস্তফা শাহীন শাহ বলেন,হোয়াইক্যংয়ে গ্রামীণ সার্ভিস মাঝে-মধ্যে কিছুটা ভাল হলেও হঠাৎ বিপর্যয় নেমে আসলে কাজ ব্যাহত হয়। টেকনাফ নিউজ ৭১ ডটকমের সম্পাদক নুর হাকিম আনোয়ার জানান, টেকনাফ পৌরসভায় ব্র্যান্ডের মোবাইলে গ্রামীণ ফোন অপারেটর কিছুটা ভাল হলেও উপজেলার অন্যান্য এলাকায় অবস্থা নাজুক। আমাদের টেকনাফ ডটকমের প্রকাশক গিয়াস উদ্দিন ভূলু জানান,গ্রামীণ ফোন অপারেটর এখন বাজে নেটওয়ার্কে পরিণত হওয়ায় অনলাইন সংবাদপত্রে কাজ কঠিন হয়ে পড়েছে। আলো নিউজ ২৪ ডটকমের নির্বাহী সম্পাদক আমান উল্লাহ কবির জানান, আমরা শুরু থেকে গ্রামীণ ফোন মডেম ব্যবহার করে আসছি। ইদানীং যে নেটওয়ার্ক বিপর্যয় ঘটছে তাকে কাজ করা কঠিন হয়েপড়ছে। টেকনাফ প্রতিদিনের সম্পাদক আব্দুস সালাম জানান, গ্রামীণ ফোন আগের মতো একাধারে কাজ করেনা। এই আছে আবার হঠাৎ হাওয়া যায় যায়। উপকূলীয় বাহারছড়ায় কর্মরত সাংবাদিক আজিজ উল্লাহ জানান,এক সময়ের জনপ্রিয় মোবাইল অপারেটর সার্ভিসের বাজে নেটওয়ার্কিংয়ে হতাশ হয়ে রবি সার্ভিস ব্যবহার করছি। শাহপরীর দ্বীপে কর্মরত সাংবাদিক জসিম মাহমুদ জানান, এই উপকূলীয় এলাকায় গ্রামীণ নেটওয়ার্ক মোটামুটি ভাল যাচ্ছে। এই ব্যাপারে কর্মরত সংবাদকর্মী ও গ্রামীণ ফোনের নিয়মিত গ্রাহক হুমায়ূন রশিদ বলেন, আমি দীর্ঘদিন ধরে এই অপারেটরের গ্রাহক। চলতি রমজান মাসের শুরু হতে হ্নীলা, হোয়াইক্যং ও বাহারছড়ায় গ্রামীণফোন অপারেটরের নেটওয়ার্ক বিপর্যয়ের ঘটনা নিয়মিত সংবাদ প্রেরণ ব্যাহত হচ্ছে। তাই আমি ক্ষুদ্ধ হয়ে অন্য অপারেটর ব্যবহার করতে বাধ্য হচ্ছি।
এই ব্যাপারে গ্রামীণফোনের টেকনাফ টেরিটোরি ম্যানেজার রাজিব পাল বলেন,হঠাৎ করে গ্রামীণ ফোন গ্রাহকদের পক্ষ থেকে আসা এইসব অভিযোগ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। আশাকরি শীঘ্রই এই সমস্যার সমাধান হতে পারে।
টেকনাফের গ্রামীণফোন গ্রাহকেরা এই সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top