ঈদ উপলক্ষে হুয়াওয়ের ওয়াইফাইভ প্রাইম ২০১৮ বাজারে

image-57463-1528380293.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক :

বিশ্বখ্যাত স্মার্টফোন প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে ওয়াই সিরিজের নতুন ফোন হুয়াওয়ে ওয়াইফাইভ ২০১৮ দেশের বাজারে বৃহস্পতিবার উন্মোচন করা হয়েছে। বড় ডিসপ্লে, ফেস আনলক, সেলফি ফ্ল্যাশ, তিনটি কার্ড স্লট ও মাল্টিটাস্ক সুবিধাসহ সব মিলিয়ে হুয়াওয়ের নতুন ফোনটি বেশ সাশ্রয়ী।

হুয়াওয়ে ওয়াইফাইভ প্রাইম ২০১৮ বাজারে আনা হয়েছে মূলত ছাত্র ও তরুণ পেশাজীবীদের কথা মাথায় রেখে যারা রুচিশীল সীমিত বাজেটে চলতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন।
বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় এই নতুন ফোনে রয়েছে ৫.৪৫ ইঞ্চির হুয়াওয়ে ফুলভিউ ডিসপ্লে। সাহায্যে ব্যবহারকারীরা ওয়েব ব্রাউজ, গেম খেলা ও পরিষ্কার ভিডিও দেখার মতো কাজগুলো সহজেই করতে পারবে।

ফোনের নিরাপত্তার জন্য আছে ফেস আনলক প্রযুক্তি। ব্যবহারকারীর মুখমণ্ডলের ১০০০টি পয়েন্ট বিভিন্ন দিক থেকে শনাক্ত করে তবেই আনলক হবে এই ফোন। এই ফোনের আছে ১৩ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা। একই সঙ্গে ৫ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা ও সেলফি ফ্ল্যাশ। ফলে অন্ধকারেও তোলা যাবে অসাধারণ সেলফি। ফোনটি চলবে অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও অপারেটিং সিস্টেমে, যা হুয়াওয়ের নিজস্ব ইএমইউআই-এর জন্য বিশেষভাবে প্রস্তুত করা হয়েছে।

ওয়াইফাইভ প্রাইম ২০১৮ ফোনে একই সঙ্গে দুটি সিম ব্যবহার করা যাবে। ফোনটিতে ২৫৬ গিগাবাইট পর্যন্ত মেমোরি কার্ডও ব্যবহার করার সুবিধা রয়েছে। দ্রুতগতির পারফরম্যান্স নিশ্চিত করার জন্য হুয়াওয়ে ওয়াইফাইভ প্রাইম ২০১৮-তে আছে ১.৫ গিগা হার্টজের কোয়াড-কোর প্রসেসর, ২ গিগাবাইট র‍্যাম আর ১৬ গিগাবাইট রম। এর ইন্টেলিজেন্ট পাওয়ার ম্যানেজমেন্ট ব্যবহারকারীকে ফোনটির ৩০২০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারিকে আরও কার্যকরভাবে কাজে লাগাতে সাহায্য করে।

ব্লুটুথের মাধ্যমে একটি স্মার্টব্যান্ড, ব্লুটুথ স্পিকার এবং গেম কন্ট্রোলারকে একই সঙ্গে সংযুক্ত করতে পারে হুয়াওয়ে ওয়াইফাইভ প্রাইম ২০১৮। এই ফোন সম্পর্কে, হুয়াওয়ে কনজ্যুমার বিজনেস গ্রুপের (বাংলাদেশ) কান্ট্রি ডিরেক্টর অ্যারন শি বলেন, ‘হুয়াওয়ে ফোনটি তৈরিই করা হয়েছে বাংলাদেশে ক্রমবর্ধমান তরুণ পেশাজীবীদের কথা মাথায় রেখে। তাদের প্রয়োজন সাশ্রয়ী মূল্যের একটি হাইপারফরম্যান্স স্মার্টফোন। হুয়াওয়ে ওয়াইফাইভ প্রাইম ২০১৮, এবারের ঈদে আমাদের ভোক্তাদের জন্য খুশির আরেকটি মাত্রা যোগ করবে বলেই আমার বিশ্বাস।

এই ফোন দেশের ৬৪ জেলার সব হুয়াওয়ে ব্র্যান্ড শপ এবং অনুমোদিত মোবাইল আউটলেট থেকে কেনা যাবে হুয়াওয়ে ওয়াইফাইভ প্রাইম ২০১৮। ফোনটির বিক্রয়মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১১,৫৯০ টাকা, সঙ্গে থাকবে এক বছরের ওয়ারেন্টি। মূল দামের সঙ্গে ৪০০ টাকা যোগ করে ওয়ারেন্টি সেবা বাড়িয়ে নেয়া যাবে আরও এক বছর।

উল্লেখ্য, বিশ্বের প্রায় ১৭০টির বেশি দেশ ও স্থানে হুয়াওয়ের সৃষ্টিশীল আইটি পণ্য, সেবা ও সল্যুশনস ব্যবহার হয় যা বিশ্বের মোট জনসংখ্যার এক-তৃতীয়াংশ মানুষকে সেবা দিচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, সুইডেন, রাশিয়া, ভারত ও চীনে হুয়াওয়ের মোট ১৫টি গবেষণা ও উন্নয়ন (আরএন্ডডি) সেন্টার রয়েছে।

হুয়াওয়ের তিনটি বিজনেস ইউনিটের মধ্যে রয়েছে হুয়াওয়ে কনজ্যুমার বিজি যারা কাজ করে স্মার্টফোন, পিসি, ট্যাবলেট, পরিধানযোগ্য ডিভাইস এবং ক্লাউড সেবা নিয়ে। বিশ্বব্যাপী টেলিকম খাতে প্রায় ৩০ বছরের অভিজ্ঞতার ওপর প্রতিষ্ঠিত হুয়াওয়ের নেটওয়ার্ক এবং একই সঙ্গে গ্রাহকদের অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সঙ্গে পরিচয় করে দেয়ার ব্যাপারে প্রতিষ্ঠানটি দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top