ভূল তথ্যের কারনে একরামের মতো যাতে আর কোন নেতার অকালে প্রাণহাণি না ঘটে..চকরিয়া পৌরসভা যুবলীগের সভায় বক্তারা

Chakaria-Pc-30-05-2018.jpg

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া :
চকরিয়া পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম সোহেলের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমুলক বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকার মিথ্যা নিউজের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভা করেছেন চকরিয়া পৌরসভা যুবলীগ। গতকাল বুধবার বিকাল চারটায় চকরিয়া পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি হাসানগীর হোসাইনের সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাংগীর আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার জেলা যুবলীগের সাবেক সিনিয়র সদস্য, চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও চকরিয়া পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি তপন কান্তি দাশ।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, চকরিয়া পৌরসভা যুবলীগের সহ-সভাপতি নুরুস শফি, হাবিবুন নবী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান, সহ-প্রচার সম্পাদক মো. সেলিম রেজা, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক বেলাল উদ্দিন কামরান, সহ-সম্পাদক মোজাম্মেল হক, সহ-সম্পাদক শওকত উসমান, রোকন উদ্দিন, সদস্য মো. ইব্রাহিম, ২নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি সুজিত দাশ, ৮নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন, ৯নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. এরফান, ৭নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মো. বেলাল উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক সাদেক হোসেন, ৬নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মিনহাজ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মো. সেলিম, ৪নং ওয়ার্ড যুবলীগের যুবলীগের সভাপতি জমির উদ্দিন, ৩নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাারণ সম্পাদক মো. শোয়াইব, জুভেনাল ভয়েস ক্লাবের আকিব হোসেন সজিব।
প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি কক্সবাজার জেলা যুবলীগের সাবেক প্রভাবশালী সদস্য তপন কান্তি দাশ বলেন, চকরিয়ায় প্রকৃত মাদক ব্যবসায়ী কারা তা আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ভাল করে জানে। তাদের গ্রেপ্তার করলে সব গোপন তথ্য বের হয়ে আসবে। পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম সোহেল ছাত্র অবস্থা থেকে সততার সাথে রাজনীতি করে আসছে। তার জনপ্রিয়তার প্রতি ঈর্ষান্বিত হয়ে একটি মহল প্রতিনিয়ত ষড়যন্ত্র করছে। এ ষড়যন্ত্রের অংশ হিসাবে তারা তাকে মাদক ব্যবসায়ি বানানোর অপচেষ্ঠা চালাচ্ছে। প্রশাসনকে ভুল তথ্য দিয়ে একরামের মত যেন আর কোন নেতার প্রাণ না যায়।
বক্তারা আরো বলেন, তার বিরুদ্ধে কতিপয় ষড়যন্ত্রকারী চরম মিথ্যাচারে মেতে উঠেছে। তারা বিভিন্ন প্রচার মাধ্যমকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে। মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে প্রশাসনকে ভুল ও মিথ্যা তথ্য দিয়ে তাকে হয়রানী করার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। যা একজন তরুণ রাজনীতিবীদ ও সাবেক ছাত্রনেতার অগ্রসর রাজনীতিতে বাধা প্রদান ছাড়া আর কিছুই নয়। বক্তারা কক্সবাজার জেলা যুবলীগ, সকল গোয়েন্দা সংস্থাসহ উর্ধ্বতন প্রশাসন ও রাজনীতিবীদদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top