চকরিয়া পুর্ববড় ভেওলা ইউনিয়নে গরীব মানুষের মাঝে খাদ্যবান্ধব কর্মসুচির আওতায় চাল বিতরণ

Chakaria-Picture-18-04-18.jpg

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া :
চকরিয়া উপজেলার পুর্ববড় ভেওলা ইউনিয়নের হাজারো গরীব মানুষের মাঝে জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসুচির আওতায় ১০ টাকা দামে চাল বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল ১৮ এপ্রিল সকালে ইউনিয়নের মাইজপাড়া স্টেশন পয়েন্টে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উপকারভোগী নারী-পুরুষের হাতে চাল তুলে দেন তরুন আওয়ামীলীগ নেতা খলিল উল্লাহ চৌধুরী।
বিতরণ অনুষ্ঠানে ওইসময় উপস্থিত ছিলেন পুর্ববড় ভেওলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মী, ইউনিয়ন পরিষদের স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার, এলাকার প্রবীণ মুরব্বী, সরকারি নিয়োগপ্রাপ্ত খুচরা ডিলার, সুধীজন ও উপকারভোগী গরীব পরিবারের নারী-পুরুষ সদস্যরা। সরকারি সিদ্বান্তের আলোকে প্রতিটি পরিবারকে ৩০ কেজি করে চাল দেয়া হচ্ছে।
চাউল বিতরণ উপলক্ষে স্থানীয় ভেওলা ইউনিয়নের মাইজপাড়া স্টেশন পয়েন্টে অনুষ্ঠিত হয় সুধীসভার। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পুর্ববড় ভেওলা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী ও মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা সন্ত্রাস নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব তরুন আওয়ামীলীগ নেতা খলিল উল্লাহ চৌধুরী। ওইসময় তিনি উপস্থিত জনগনের উদ্দেশ্যে বলেন, সংসদ নির্বাচনে আগে আওয়ামীলীগ সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশের জনগনকে কথা দিয়েছিলেন তাঁর সরকার রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসলে জনগনকে ১০ টাকায় চাউল দেবে। তিনি জনগনের ভোটে রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসীন হওয়ার পর সেই কথা রেখেছেন। জননেত্রী শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্বে সরকার বিগত ৯বছর ধরে দেশের প্রতিটি জনপদে বছরে খাদ্য বান্ধব কর্মসুচির আওতায় গরীব মানুষের জন্য এই প্রনোদনা চালু করেছেন।
তিনি বলেন, প্রতিবছর খাদ্য বান্ধব কর্মসুচির আওতায় প্রতিটি পরিবারকে সরকার ১০ টাকা দামে ৩০ কেজি করে চাউল দিচ্ছে। দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন অগ্রযাত্রার পাশাপাশি জনগনের জীবনমান উন্নয়নে সরকার সব ধরণের সহযোগিতা দিচ্ছে। ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে গ্রামের প্রতিটি অভাবগ্রস্থ পরিবারের জন্য ভিজিএফ, ভিজিডি কর্মসুচির আওতায় বিনামুল্যে চাউল দিচ্ছে। গরীব মানুষের চিকিৎসার জন্য টাকা দিচ্ছে, বিধবা, বয়স্ক নারী-পুরুষের জন্য ভাতা দিচ্ছে, প্রতিবন্ধিদের জন্য ভাতা দিচ্ছে।
তরুন আওয়ামীলীগ নেতা খলিল উল্লাহ চৌধুরী আরও বলেন, গর্ভকালীণ সময়ে চিকিৎসা খরচ মেটাতে গরীব পরিবারের নারীদের জন্য ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে বিশেষভাবে টাকা বরাদ্দ দিচ্ছে। মাতামুহুরী নদীর ভাঙ্গন থেকে এলাকার জনগনকে রক্ষা করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছে। গ্রামের প্রতিটি সড়ক মেরামত করে দিচ্ছে। তাই জনগনের কল্যাণ ও দেশের অগ্রগতি উন্নয়নের জন্য আবারও আওয়ামীলীগকে ভোট দিয়ে রাষ্ট্র ক্ষমতায় আনতে হবে। দেশরত্ম শেখ হাসিনাকে আবারও প্রধানমন্ত্রী করতে হবে। এইজন্য সকলকে আগামী নির্বাচনে আওয়ামীলীগের জন্য কাজ করতে হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top