টেকনাফে বসতঘরে গুলির্বষণ, ভাংচুর ও লুটপাট, শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ

protibad-11.jpg

: গতকাল কক্সবাজার থেকে প্রকাশিত দৈনিক কক্সবাজার পত্রিকায় টেকনাফে বসতঘরে গুলির্বষণ করে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট, আহত ২ শীর্ষক শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও জোর প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
টেকনাফ সদর ইউনিয়নের পূর্ব গোদারবিল এলাকায় গত ১৭ তারিখ দিবাগত রাত ১০টার দিকে নুরুল হক কালুর বসতবাড়ীতে সন্ত্রাসী হামলা গুলিবর্ষণ ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে মর্মে যে সংবাদ পরিবেশন করা হয়েছে তা সম্পূর্ন মিথ্যা বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। কিছু চিহ্নত সন্ত্রাসীরা তুচ্ছ ঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার কু-মানষে নিরহ লোকদের সন্ত্রাসী বাহিনী সাজিয়ে অবাস্তব সংবাদ পরিবেশন করা হয়েছে। যা আমাদের পরিবারের বিরুদ্ধে একটি ধারাবাহিক পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র।
মূল কথা হল গত ১৭ মার্চ রাত ১০টার দিকে টেকনাফ উপজেলার সদর ইউনিয়নের গোদারবিল এলাকায় পাশের বাড়ীতে কুকুর যাওয়া আসাকে কেন্দ্র করে এলাকার চিহ্নত সন্ত্রসী মৃত ফজল রহমানের পুত্র নুরুল হক (৪৫) প্রকাশ কালা ড্রাইভার, নুরুল হকের পুত্র জিয়াউল হক ( ২২) মোহাম্মদ হোসাইনের পুত্র আজিজুল হক আজিজ (৩৫) রাজিবুল হক, উখিয়া উপজেলার পালংখালীর আলোচিত আরফাত হত্যার মামলার আসামী বশির আহমদের স্ত্রী খালেদা বেগম (৩০) ও নুরুল হকের স্ত্রী হাকিমা বেগম (৩০) সহ ৭/৮ জনের স্বসস্ত্র কেড়ার বাহিনী আমার বসত বাড়ীতে দু’ধর্র্ষ হামলা চালায় ও লুটপাট করে । এ সময় হামলায় অহত হয় নজির আহমদের ছেলে নুরুল আবছার (২৩) ও মেয়ে সুবেত আরা (২৫), তার স্ত্রী জুহুরা বেগম (৪৫) এবং ছৈদয় নুর এর স্ত্রী মাহমুদা বেগম (৪৫)। এ বিষয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান নুরুল আলম অবগত রয়েছে। অথচ সংবাদের তার বিচারের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ত্রাসী হামলা চালায় বলে যে কল্পকাহিনী সাজানো হয়েছে তার কোন ভিত্তি নেই।
উক্ত ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য একটি কু-চক্রী মহল সাংবাদিকদের মিথ্যা ও বিভ্রান্তী মূলক তথ্য দিয়ে আমাদের বিরুদ্বে মান হানীকর সংবাদ পরিবেশন করেছে। যা মূল ঘটনার সম্পূর্ণ বিপরীত। সংবাদে আরও উল্লেখ করা হয়েছে যে, বসত ঘরে গুলিবর্ষণ, ভাংচুর ও লুটপাট করার মত কোন ঘটনাই ঘটেনি। সুতারাং উক্ত প্রকাশিত সংবাদটি একেরারেই মিথ্যা। এলাকার চিহ্নত ক্যাডার বাহিনীদের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডকে আড়াল করার জন্য ভিত্তিহীন ও কু-রুচিপূর্ন সংবাদ পরিবেশন করেছে। আমরা উক্ত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও জোর প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পাশাপাশি প্রসাশনকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য বিনীত অনুরুধ যানাচ্ছি।

প্রতিবাদকারী
১। নজির আহমদ পিতা: মৃত আব্দুস সালাম
২। নুরুল আবছার পিতা: নজির আহমদ
৩। সাইফুল ইসলাম পিতা: অলী আহমদ
সর্ব সাং- গোদারবিল, সদর ইউনিয়ন
টেকনাফ, কক্সবাজার।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top