চকরিয়ায় জাতীয় দুর্যোগ দিবস পালিত

3.jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া : “জানবে বিশ্ব জানবে দেশ দুর্যোগ মোকাবেলায় প্রস্তুত বাংলাদেশ” শ্লোগানে কক্সবাজারের চকরিয়ায় নানা কর্মসুচির মধ্য দিয়ে জাতীয় দুর্যোগ দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটিকে উপলক্ষে শনিবার সকালে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বর্ণাঢ্য র‌্যালী, আলোচনা সভা ও চিত্রাংকন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দিনের শুরুতে সকালে উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে বর্ণ্যাঢ্য র‌্যালী প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে উপজেলা পরিষদের হলরুমে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।
চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নূরউদ্দিন মুহাম্মদ শিবলী নোমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা সিপিবি কর্মকর্তা মো. মুনির চৌধুরী, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জোবায়ের আহসান, উপজেলা রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির টিম লিডার মো.নুরুল আবছার, সাহারবিল ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল, চকরিয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন অফিসার জি.এম মহিউদ্দিন প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন মাতামুহুরী উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক ফজল কাদের, আওয়ামীলীগ নেতা নুরুল ইসলাম, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির মাঠ পর্যায়ে কর্মরত সিপিপি সদস্যবৃন্দ। অনুষ্ঠানে উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্টানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে চিত্রাংকন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আলম বলেছেন, নির্বিচারে পাহাড় নিধন, পাথর উত্তোলন ও পুকুর জলাশয় ভরাট করে অপরিকল্পিতভাবে স্থাপনা নির্মাণের কারনে বর্তমানে জলবায়ুর বিরূপ প্রভাব বিস্তার করছে সর্বত্র। ফলে প্রাকৃতিক পরিবেশ চরম ঝুঁিকপুর্ণ অবস্থায় রয়েছে। এমনিতে বাংলাদেশে প্রতিবছর জলবায়ুর তান্ডবে হাজার হাজার পরিবার জানমালের ক্ষতির শিকার হচ্ছে। আমাদেরকে এ ধরণের ক্ষতি থেকে বাঁচতে হবে। সেইজন্য যার যার অবস্থান থেকে সকলকে কাজ করতে হবে।
তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সফল নেতৃত্বে বর্তমান সরকার দূযোর্গের ঝুকি মোকাবেলায় পরিকল্পিতভাবে কাজ করছেন। ইতোমধ্যে দুর্যোগ প্রবণ এলাকায় টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণ করা হচ্ছে। লাগানো হচ্ছে নানা প্রজাতির গাছ। এছাড়াও দূযোর্গে আক্রান্ত জনগনকে সরকারিভাবে সহায়তা দেয়া হচ্ছে।
উপজেলা চেয়ারম্যান আরও বলেন, দূর্যোগের সময় জনগনের জানমালের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে। এজন্য প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজ ও দায়িত্বশীলসহ সবাইকে সজাগ ভুমিকা রাখতে হবে। সমাজের প্রতিটি স্পটে এব্যাপারে জনসচেতনতা বাড়াতে হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top