গত ৩মাসে চট্টগ্রামের হালদা নদীতে ১৬ ডলফিনের মৃত্যু

halda-20180122103912.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক : প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হিসেবে পরিচিত হালদা নদীতে সম্প্রতি উদ্বেগজনক হারে বিপন্ন প্রজাতির গাঙ্গেয় ডলফিন মারা যাওয়ার ঘটনা ঘটছে। গত তিন মাসে হালদা নদী ও সংলগ্ন খালগুলোতে অন্তত ষোলোটি ডলফিনের দেহ ভেসে উঠেছে। কিন্তু কেন হালদা নদীতে ডলফিন এই চরম বিপদের মুখ
এ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের হালদা রিভার রিসার্চ ল্যাবরেটরির সমন্বয়ক ড. মনজুরুল কিবরিয়া বলছেন, পৃথিবীতে যত প্রাণী ঝুঁকির মুখে এই ডলফিন তাদের অন্যতম। হালদা ছিল তাদের অন্যতম আবাসস্থল। এতদিন নিরাপদেই ছিল তারা। এদের সংখ্যাও ভালো ছিল। কিন্তু হালদা নদীর পানি দূষণ হচ্ছে। পানি প্রবাহ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। উজানে রাবার ড্যাম দেয়ায় এটা হয়েছে। ফলে পানির লেভেল কমে গেছে। ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করা হয়। ড্রেজার চলাচলের সময় ডলফিনগুলো আঘাত পেয়ে মারা যাচ্ছে।
কিবরিয়া বলেন, এটা বিশ্বের অতি বিপন্ন প্রাণী। হালদাতে প্রায় ১৬৬টি প্রজাতি আছে। কিন্তু হালদার ডলফিন নিয়ে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।
তার মতে, যে নদীতে ডলফিন থাকে বোঝা যায় সে নদীটা জীবন্ত। ডলফিন চলে যাচ্ছে তাই মাছেরও ক্ষতি হবে।
হালদায় সত্যিই যদি ডলফিন চলে যায় বা আর না থাকে তবে বাংলাদেশ বিশ্বের অতি গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রাণী হারাবে বলে মনে করেন এ গবেষক।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top