চকরিয়ার উন্নয়ন মেলায় জনগনের কল্যাণে পুলিশের সেবা সর্ম্পকে ব্যতিক্রমী আয়োজন

o.jpg

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া : চকরিয়া উপজেলা পরিষদের পাশে পৌর কমিউনিটি সেন্টার মাঠে বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া তিনদিনের উন্নয়ন মেলায় ব্যাপক দর্শনার্থীর সমাগম ঘটেছে। নারী-শিশু থেকে শুরু করে নানা বয়সের শ্রেণী-পেশার মানুষ মেলায় স্থান পাওয়া প্রতিটি স্টল ঘুরে-ফিরে দেখছেন। সরকারের উন্নয়ন সাফল্য ও আগামী দিনে সরকারের উন্নয়ন কর্ম পরিকল্পনার নানা কার্যক্রম স্বচক্ষে প্রত্যক্ষ করছেন দশনার্থীরা। সন্ধ্যার পরপর শীতের হিমেল পরশ উপেক্ষা করে সরগরম হয়ে উঠেছে মেলা প্রাঙ্গন। অনুষ্টিত উন্নয়ন মেলায় অংশ নিয়েছেন উপজেলা তথ্য অফিস, চকরিয়া পৌরসভা, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ, উপজেলা হিসাবরক্ষণ অফিস, প্রাণী সম্পদ বিভাগ, পরিসংখ্যান ব্যুরো, মৎস্য বিভাগ, বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড, প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ, বিদ্যুৎ বিভাগ, চকরিয়া থানা পুলিশ, উপজেলা আনসার ও ভিডিপি, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কার্যালয়, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগ, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ, প্রকল্প বাস্তবায়ন অধিদপ্তর, কক্সবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ড, কক্সবাজার সড়ক ও জনপথ বিভাগ, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস, সমাজ সেবা কার্যালয়, কৃষি স¤প্রসারণ বিভাগ, কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগ, কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন, হর্টিকালচার বিভাগ, রেশম উন্নয়ন বোর্ড, একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, সোনালী, জনতা ও কৃষি ব্যাংক, কুটির শিল্প, উপজেলা আইসিটি বিভাগ। এছাড়াও উপজেলার ১৮টি ইউনিয়ন পরিষদের ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্র, এবং বেসরকারী সংস্থাসহ অন্তত ৬৮টি স্টল।
জানা গেছে, তিনদিনের উন্নয়ন মেলায় অংশ নেয়া প্রায় সব স্টলই সরকারের উন্নয়ন সফলতার চারবছর পুর্তির নানা কার্যক্রম তুলেছেন। আগামী দিনের কর্মসুচি ও বাস্তবায়নধীন প্রকল্পের সুফল সম্পর্কে জনগনের মাঝে ধারণা দিচ্ছেন। তবে মেলায় অংশ নেয়া প্রতিটি স্টলে সরকারের উন্নয়ন সফলতা ও আগামী দিনের কর্মসুচি সর্ম্পকে বিশদ তুলে ধরা হলেও চকরিয়া থানা পুলিশের ব্যানারে একটি স্টলই অপরাধমুক্ত সমাজ বির্নিমানে সেবার ব্যতিক্রমী আয়োজন নিয়ে মেলায় স্টল পেঁতেছে। স্টলে সাটানো হয়েছে জনগনের দৌড়গৌড়ায় পুলিশের সেবা কিভাবে পৌঁছানো যায় এবং জনগনকে সহজতম সময়ের মধ্যে কিভাবে পুলিশের সেবা গ্রহন করবেন। থানা পুলিশের স্টলে আগতদের অবগতির জন্য সকল ধরণের তথ্য দেয়া হচ্ছে শুধুই সেবা সম্পর্কে। সমাজে সকল ধরণের নারী নির্যাতন প্রতিরোধ, স্কুল-কলেজ, মাদরাসাসহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসা যাওয়ার পথে কিংবা পথে-ঘাটে নারীরা যাতে ইভটিজিংয়ের শিকার না হয় সেই ধরণের আইনী সহায়তা পেতে দেয়া হচ্ছে বদ্ধমল ধারণা। এলাকাকে মাদকমুক্ত করতে পুলিশের ভুমিকা এবং পুলিশকে অপরাধ দমনে জনগনকে কিভাবে সহায়তা করবে সেই সর্ম্পকে। পাশপাশি জনগনের দৌঁড়গোড়ায় পুলিশের সার্বিক অর্থৈ কাঙ্খিত সেবা নিশ্চিত করা যায় সেই জন্য নেয়া হচ্ছে অভিযোগ-আপত্তি এবং সকল ধরণের অভিযোগের বিষয়ে তাৎক্ষনিক পুলিশ কি ধরণের আইনী প্রদক্ষেপ নেবে তাঁর বিশদ বিবরণ।
তিনদিনের উন্নয়ন মেলায় পুলিশের সেবা নিয়ে ব্যতিক্রমী এই আয়োজনে উদ্বোধনী দিনে সকলকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন চকরিয়া থানার ওসি মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী ও ওসি তদন্ত মো.মিজানুর রহমান। উপস্থিত ছিলেন থানা পুলিশের কর্মকর্তা ও পুলিশ সদস্যরা। স্টলে সার্বক্ষনিক সেবা সর্ম্পকে ধারণা দিচ্ছেন একজন নারী এএসআইসহ তিনজন নারী পুলিশ সদস্য। তাদের সাথে সহায়তা দিচ্ছেন পুরুষ পুলিশ সদস্যরা।
জানতে চাইলে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, তিনদিনের উন্নয়ন মেলায় প্রতিটি স্টলে সরকারের চারবছর পূর্তিতে উন্নয়ন অগ্রযাত্রার ফিরিস্তি জনগনের সামনে তুলে ধরেছেন। আমাদের প্রতিষ্ঠানটি যেহেতু আইন শৃঙ্খলা নিয়ে কাজ করে সেইজন্য সরকারের তরফ থেকে জনগনের কল্যানে পুলিশের সেবা সর্ম্পকে ব্যতিক্রমী আয়োজন নিয়ে আমাদের এই উদ্যোগ। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার উদ্বোধনী দিন ও শুক্রবার মেলার দ্বিতীয় দিনে আমাদের স্টলে প্রচুর জনসমাগম ঘটেছে। আমাদের পক্ষ থেকে জনগনকে সাধ্য মতো সেবা দেয়ার বিষয়ে অবহিত করা হয়েছে। আশাকরি মেলার মাধ্যমে জনগন সত্যিকার অর্থে পুলিশের সেবা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল হবে এবং আইনশৃঙ্খলার উন্নয়নে পুলিশকে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেবে। জনগনের অংশগ্রহন নিশ্চিত করা সম্ভব হলেই সমাজ থেকে সকল ধরণের অপরাধ প্রবণতা সমুলে উৎপাটন করা পুলিশের জন্য সময়ের ব্যাপার মাত্র।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top