শরণার্থী ক্যাম্পে কর্মরত এনজিও সমুহে স্থানীয় শিক্ষিতদের চাকুরীর দাবীতে হোয়াইক্যংয়ে মানববন্ধন ও পথসভা অনুষ্ঠিত

Teknaf-Pic-B-22-11-17.jpg

বিশেষ প্রতিবেদক:
টেকনাফের হোয়াইক্যংয়ে শরণার্থী ক্যাম্পে এনজিও সংস্থা এমএসএফ এবং (এমওএএস) মোয়াসসহ বিভিন্ন সংস্থায় স্থানীয় শিক্ষিত বেকার নারী-পুরুষ ও যুবকদের কর্মসংস্থান তথা চাকুরীর দাবীতে এক মানববন্ধন ও পথসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
২২ নভেম্বর দুুপুর সাড়ে ১২টায় উপজেলার হোয়াইক্যং ঊনচিপ্রাং ষ্টেশনে প্রধান সড়কে ৩নং ওয়ার্ডের সর্বস্তরের জনতার উদ্যোগে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন ও পথসভায় স্থানীয় জনসাধারণ উপস্থিত ছিলেন। মানব বন্ধনোত্তর এক পথসভা হোয়াইক্যং ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের আহŸায়ক আব্দুল খলিল চৌধুরী সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ নেতা আজিজুর রহমান,হোয়াইক্যং ইউনিয়ন (উত্তর) শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মাসুক শাহরিয়ার, সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান ওয়াসিম, ঊনচিপ্রাং সরকারী প্রাইমারী স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি আইয়ুব আলী, ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের যুগ্নআহŸায়ক শহীদ উল্লাহ ফাহাদ, কফিল উদ্দিন, চাকুরী প্রার্থী মিজানুর রহমান, হাসনা হেনা, তপুরা আক্তার, আবুল কালাম, আব্দুল মালেক, রাশেদুল ইসলাম, আবু শেফা, আবদুর রহামন, হেলাল উদ্দিন, মোঃ সায়েম, রনি মল্লিক, নাসিমা আক্তার, আহমুনা আক্তার প্রমূখ। এতে বক্তারা বলেন, রোহিঙ্গাদের কারণে স্থানীয়ভাবে ক্ষতিগ্রস্থদের বিভিন্ন এনজিও সংস্থা সমুহে শিক্ষিতদের চাকুরী দেওয়ার ব্যাপারে সরকারের মন্ত্রী,এমপিসহ উর্ধ্বতন মহলের নির্দেশনা থাকা সত্বেও এনজিও সংস্থা এমএসএফ ও মোয়াস তা উপেক্ষা করছে। বরং জামায়াত-বিএনপির কতিপয় নেতাদের সাথে আঁতাত করে চিহ্নিত কিছু জামায়াত-বিএনপির লোকদের চাকুরীতে নিয়োগ দিয়েছে। প্রকৃত শিক্ষিত বেকার ও দরিদ্র জনসাধারণ সেই সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অনেকে কৌশলে কমমূল্যে সেবাপ্রার্থী রোহিঙ্গাদের ইনসেনটিভ প্রদানের মাধ্যমে ব্যবহার করছে বলে জানান। স্থানীয়দের চাকুরী দেওয়ার ব্যাপারে এনজিও মোয়াস কর্মকর্তার সাথে কথা বললে উল্টো হুমকি দেয় বলে অভিযোগ তোলেন বক্তারা। এই ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ নুর আহমদ আনোয়ারী জানান, আমরা দলমত নির্বিশেষে রোহিঙ্গাদের কারণে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার কারণে স্থানীয় শিক্ষিত নারী-পুরুষের চাকুরী তথা কর্মসংস্থানের দাবী জানিয়ে আসছি।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top