রেড ক্রিসেন্টের নামে প্রতারণার শিকার অর্ধ শতাধিক ইউপি সদস্য

protarona_tt-pic.jpg

টেকনাফ টুডে ডেস্ক |
আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা রেড ক্রিসেন্টের নামে প্রতারণার শিকার হয়েছেন চুয়াডাঙ্গার অর্ধ শতাধিক ইউপি সদস্য।

তাদের কাছ থেকে প্রতারণা করে প্রায় পাঁচ লাখ টাকারও বেশি অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে এক প্রতারক।

বুধবার চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, বুধবার সকাল ১০টার পর থেকে উপজেলার উথলী, সীমান্ত, রায়পুর, বাঁকা, হাসাদহ্ ও আন্দুলবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের সব সদস্যদের মোবাইল ফোনে আবদুল আলিম নামে এক ব্যক্তি কল করেন।

০১৭৮৬২৬০৫৮৯ নম্বর থেকে ইউপি সদস্যদের কল করে নিজেকে রেড ক্রিসেন্টের খুলনা অঞ্চলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক পরিচয় দেন তিনি।

এ সময় ইউপি সদস্যদের আবদুল আলিম বলেন, রেড ক্রিসেন্টের পক্ষ থেকে প্রতিটি ওয়ার্ডে ২০ জন গরিব মানুষকে সাহায্য করা হবে। এতে প্রতিজন গরিব মানুষ ৩০ কেজি চাল, ১০ কেজি ডাল, ৫ কেজি তেল, ১০টি করে শাড়ি ও লুঙ্গি এবং ৫০টি করে সাবান পাবেন।

এজন্য ইউপি সদস্যদের বিকাশের মাধ্যমে ১৫ হাজার করে টাকা পাঠিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে বলেন তিনি।

বিকাশ করার জন্য প্রত্যেক ইউপির সদস্যের কাছে আলাদা আলাদা মোবাইল নম্বরও দেয়া হয়।

এ সময় শর্ত জুড়ে দেয়া হয় বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য।

এরপর অধিকাংশ ইউপি সদস্য প্রতারকদের দেয়া মোবাইল ফোন নম্বরে ৫ হাজার টাকা থেকে ১৫ হাজার টাকা পর্যন্ত বিকাশ করেন।

এক পর্যায়ে বিষয়টি জানাজানি হলে ইউপি সদস্যরা জানতে পারেন তারা সবাই প্রতারকের খপ্পরে পড়েছেন।

আন্দুলবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মো. বাহাউদ্দীন বলেন, প্রতারকরা আমার কাছেও টাকা চেয়েছিল, কিন্তু আমি দেইনি। তবে আমার অধিকাংশ সহকর্মী প্রতারকের খপ্পরে পড়ে টাকা খুইয়েছেন।

উথলী ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মো. লিয়াকত হোসেন বলেন, আমার কাছেও ফোন করে টাকা চেয়েছিল। কিন্তু বিষয়টি আমার কাছে সন্দেহজনক হওয়ায় টাকা দিইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top