টেকনাফের শাহপরীরদ্বীপে নারী-শিশুসহ ৪ রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার : দালালরাই ডুবিয়ে দেয় ট্রলারটি

Rohingha-dead_sha.jpg

আব্দুল মাবুদ, শাহপরীরদ্বীপ প্রতিনিধি।
বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের চেষ্টার সময় কক্সবাজারের টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপের কাছে রোহিঙ্গাবোঝাই একটি নৌকাডুবির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় নদী থেকে চার লাশ উদ্ধার করেছেন স্থানীয়রা।

এদের মধ্যে দু’জন নারী ও দুটি শিশু রয়েছে। ওই নৌকায় আরও যাত্রী ছিল বলে জানান স্থানীয়রা।

বুধবার সকাল ৮টার দিকে উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীর দ্বীপ সমুদ্রসৈকত এলাকা থেকে ওই চারজনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য নুরুল আমিন জানান, সকালে স্থানীয় জেলেদের কাছ থেকে খবর পেয়ে শাহপরীর দ্বীপ দক্ষিণপাড়া ও মাঝেরপাড়া সৈকত থেকে চারজনের লাশ উদ্ধার করা হয়। রাতে নৌকাটি ঢেউয়ের কবলে পড়ে ডুবে যেতে পারে।

লাশ উদ্ধারের বিষয়টি স্থানীয় বিজিবি ও পুলিশকে জানানো হয়েছে।

টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল এস এম আরিফুল ইসলাম জানান, নৌকা ডুবির ঘটনায় চারজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

এদিকে নির্ভরযোগ্য একাধিক সূত্র জানিয়েছে, তীরে ভীড়ার পর চাহিদামতো টাকা আদায় নিয়ে রোহিঙ্গা ও দালালদের মধ্যে বাকবিতন্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এসময় নৌকা মাঝি দালাল কলিমুল্লাহ ছোট ট্রলারটি ডুবিয়ে দেয় । সে মাঝের পাড়ার রাজুর ছেলে। অপরদিকে ট্রলারটির মালিক মাঝের পাড়ার সিরাজের ছেলে আমান উল্লাহ বলে জানা গেছে। ট্রলারটি বর্তমানে ঘাটে রয়েছে। এব্যাপারে তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এছাড়া একই সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে অনুপ্রবেশের চেষ্টাকালে ভোরে রোহিঙ্গা শিশু, নারী, পুরুষসহ ৭৫ জনকে আটক করে বিজিবির হেফাজতে রাখা হয়েছে। তাদের মানবিক সহায়তা দিয়ে যেকোনো সময় মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হবে বলে জানান লে. কর্নেল আরিফুল।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top