চকরিয়ায় বৃক্ষরোপন কর্মসুচি উদ্বোধনে-জাহেদুল ইসলাম লিটু সবুজ বাংলাদেশ গড়তে জাতির পিতা বৃক্ষরোপন ও দেশরত্ম শেখ হাসিনা বনায়ন প্রকল্প চালু করেন

Chakaria-Picture-28-08-2017.jpg

এম.জিয়াবুল হক, চকরিয়া :
চকরিয়া উপজেলার লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে বৃক্ষরোপন কর্মসুচির আওতায় পরিষদের আশপাশ এলাকায় গাছের চারা রোপন করা হয়েছে। গতকাল সোমবার সকালে ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে বৃক্ষরোপন কর্মসুচির উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কক্সবাজার জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু।
লক্ষ্যারচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তাফা কাইছারের সভাপতিত্বে বৃক্ষরোপন কর্মসুচি উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিট্রিশ আমেরিকান টোব্যাকো চকরিয়া লিফ অফিসের ব্যবস্থাপক নাাছিমুল হক। উপস্থিত ছিলেন প্যানেল চেয়ারম্যান মনির উল্লাহ, আবদুল গনী, নেছারা বেগম, ইউপি মেম্বার রশিদ আহমদ, জিয়াবুল করিম, চৌধুরুল কবির, সায়েরা বেগম, আবুল কালাম, মোক্তার আহমদ, হাসিনা বেগম প্রমুখ। পরিষদ এলাকার পাশপাশি স্থানীয় একাধিক সড়ক ও কক্সবাজার-চট্রগ্রাম মহাসড়কে গাছের চারা রোপন করেন ইউনিয়ন পরিষদের অর্থায়নে।
বৃক্ষরোপন কর্মসুচি উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথি জাহেদুল ইসলাম লিটু বলেন, স্বাধীনতার পর সর্বপ্রথম সুবজ বাংলাদেশ বির্নিমানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বৃক্ষরোপন কর্মসুচির সুচনা করেন। যাতে বৃক্ষরোপন কর্মসুচির মাধ্যমে গাছ লাগিয়ে পরিবেশের সুরক্ষা নিশ্চিতের পাশাপাশি জনগনের আর্থিক অবস্থার উন্নতি ঘটে। বাবার আর্দশে রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসার পর থেকে বাংলাদেশকে জলবায়ুর বিরূপ দুর্যোগ থেকে মুক্ত করতে এবং জনগনের আয়ের পথ সুগম করতে বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ম শেখ হাসিনা সারাদেশে সামাজিক বনায়ন প্রকল্প বেগবান করেন। এই প্রকল্পের মাধ্যমে প্রতিটি অঞ্চলে হতদরিদ্র মানুষকে উপকারভোগী বা অংশিদার করে সরকার বনায়ন কার্যক্রম এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে উপকারভোগী বেশির ভাগ মানুষ বনায়নের গাছ বিক্রির লভাংশের টাকায় পরিবারের আর্থিক দৈনদশা কাটাতে সক্ষম হচ্ছে। তিনি বলেন, শুধু সরকারিভাবে নয়, আমাদেরকে নিরাপদে বেঁেচ থাকতে হলে নিজেদের উদ্যোগে ব্যক্তিগতভাবেও ঘরে বাইরে পতিত জায়গায় বেশি করে গাছ লাগাতে হবে। যাতে আগামী প্রজন্মের জন্য একটি সুন্দর বাংলাদেশ বির্নিমান করতে পারি। তিনি লক্ষ্যারচর ইউনিয়নের বৃক্ষরোপন কর্মসুচিতে গাছের চারা দেয়ার জন্য বৃটিশ আমেরিকান টোবাকোকে ধন্যবাদ জানান। #

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top